অন্তিম শয়নে বরেণ্য সাংবাদিক মিজানুর রহমান তোতা

0
33

নিজস্ব প্রতিবেদক : হাজারও গুনগ্রাহী আর সহকর্মীদের ফুলের শুভেচ্ছায় সিক্ত হয়ে অন্তিম শয়নে চলে গেলেন দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকার যশোর ব্যুরো প্রধান ও বিশেষ সংবাদদাতা মিজানুর রহমান তোতা (৬৫)। শনিবার বাদ জোহর শহরের পালবাড়ি জামে মসজিদে নামাজে জানাজা শেষে খয়েরতলায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এর আগে শনিবার (১৭ জুলাই) সকাল ৭টার দিকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এর আগে ৩ জুলাই তিনি করোনায় আক্রান্ত ও ব্রেনস্ট্রোক নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি এক ছেলে, দুই মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের চিকিৎসক আরিফুল ইসলাম জানিয়েছেন, সাংবাদিক মিজানুর রহমান করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। এছাড়া তার মস্তিষ্কেও রক্তক্ষরণ হয়েছিল। তিনি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

উল্লেখ্য মিজানুর রহমান তোতার জন্ম ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজ-সংলগ্ন এলাকায়। সেখানে তিনি বেড়ে ওঠেন। ঝিনাইদহ কে সি কলেজে পড়াকালে তিনি জাসদ ছাত্রলীগের রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। পরে স্থানীয় দৈনিক স্ফুলিঙ্গের মাধ্যমে গণমাধ্যমে হাতেখড়ি হয়। পরে তিনি দৈনিক আজাদসহ বিভিন্ন পত্রিকায় কাজ করেছেন। দৈনিক ইনকিলাব বাজারে আসার পর তিনি এই পত্রিকায় নিযুক্ত হন। জেলা প্রতিনিধি থেকে শুরু করে বিশেষ প্রতিনিধিও হয়েছিলেন। মিজানুর রহমান তোতা প্রায় ৪৫ বছর ধরে সাংবাদিকতা করছেন। এর মধ্যে একটানা ৩৫ বছরই কাজ করেছেন দৈনিক ইনকিলাবে।
অবিভক্ত যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের শীর্ষ নেতৃত্বে থাকা ছাড়াও তিনি প্রেসক্লাব যশোরের একাধিকবারের সভাপতি ও সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার কয়েকটি বই রয়েছে বাজারে। কয়েক বছর আগে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণে তার শরীরের একাংশ অকেজোপ্রায় হয়ে যায়। এর পর তিনি আর পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠতে পারেননি। সাংবাদিকতায় ছুটাছুটিও থেমে যায় অনেকটাই। এই সময়কালে তিনি কবিতা লেখালেখিতে মনোযোগী হন।