শ্বশুরের অপমানের শোধ নিতেেই স্কুল ছাত্র রাতুলকে খুন করেছে দুলাই

0
70

নিজস্ব প্রতিনিধ

যশোরের চৌগাছায় পাট ক্ষেতে পাওয়া সেই স্কুলছাত্র রাতুলকে খুন করেছে তার আপন দুলাভাই শিশির আহমেদ (১৯)। শনিবার এক প্রেসব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) জাহাঙ্গীর আলম। ঘাতক শিশিরকে গত শুক্রবার দুপুরে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়ছে। আটক শশিরি আহমদে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার ট্রাক ড্রাইভার হায়দার আলী মন্ডলের ছেলে।
ডিবি কার্যালয়ে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে বলা হয়, প্রায় এক বছর আগে বাজীপোতা গ্রামের মহিউদ্দিনের মেয়ে মাহমুদা মমতাজকে ভালোবসেে করে শিশির। কিন্তু এ বিয়ে মানতে পারেনি শ্বশুর মহিউদ্দিন। তাই একদনি তিনি জামাই শিশিরকে বকাঝকা করে অপদস্ত করেন। এর প্রতিশোধ নিতেই শ্যালক রাতুলকে হত্যার পরিকল্পনা করে শিশির।
গত ১১ জুলাই শিশির তার স্ত্রীর মোবাইল ফোন থেকে রাতুলকে কল করে চৌগাছায় ডেকে আনে। বেড়ানোর কথা বলে তাকে নিয়ে যায় চৌগাছার লস্করপুর শ্মশান মাঠে। সেখানে গাজা এবং কোমল পানীয়র মধ্যে ঘুমের ঔষুধ মিশিয়ে রাতুলকে খাওয়ায়। এরপর রাতুল অচতেন হয়ে গেলে তার নাক মুখে স্কচটপে দিয়ে মুড়িয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যঅ করে শিশির। এরপরে বাড়ি ফিরে রাতুলের মোবাইল ফোন ঘরে লুকিয়ে রাখে। এবং বাপের ট্রাকে করে চট্্রগ্রামে পালিয়ে যায়।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) জাহাঙ্গীর আলম আরো বলেন, এই হত্যা মামলাটি ছিল “ক্লুলেস”। মামলাটি ডিবি পুলিশের এসআই শামীম হোসেনকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তথ্যপ্রযুক্তি ও সোর্স এর মাধ্যমে অভিযুক্তকে শনাক্তের পরেই তাকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে খুনের কথা স্বীকার করেছে শিশির। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ি ঘর থেকে রাতুলের মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।। প্রেসব্রিফিংএ অন্যান্যদের মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক সার্কেল) বেল্লাল হোসাইন,ডিবি ওসি রূপন কুমার সরকার, এসআই মফিজুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শামীম হোসেন জানিয়েছেন ঘটনার সাথে অন্য কেউ জড়িত আছে জানতে আসামীকে ৭দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হলে আদালত ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।