যবিপ্রবি ক্যাম্পাস থেকে শহীদ মসিয়ূর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হোসাইন ইছাদ অস্ত্র গুলি ও ম্যাগজিনসহ গ্রেফতার

0
329

বিশেষ প্রতিনিধি: যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) ক্যাম্পাস থেকে ছাত্রলীগের নেতা হোসাইন ইছাদ কে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মসিয়ূর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বলে জানাগেছে।
যবিপ্রবি বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রগুলো জানিয়েছে, শুক্রবার জুম্মার নামাজের পরপর হোসাইন ইছাদসহ তার কয়েকজন সহযোগী বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমীক ভবনের সামনে ঘোরাফেরা করছিল। খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে থাকা পুলিশ তাদের চ্যালেঞ্জ করে। পুলিশ এ সময় সেখানে থাকা হোসাইন ইছাদসহ কয়েকজনের শরীর তল্লাশী শুরু করে। তল্লাশীর এক পর্যায় পুলিশ ছাত্রলীগ নেতা ইছাদের কাছে অস্ত্র, গুলি ও ম্যাগজিন পায়। অস্ত্রগুলি ও ম্যাগজিন পাওয়ার অভিযোগে ছাত্রলীগের ওই নেতাকে গ্রেফতার করলেও সহযোগীদের ছেড়ে দেয় পুলিশ।
বিশ্ববিদ্যালয়ের অদূরে সাজিয়ালি পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই আসাদুজ্জামানের কাছে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই বিষয়ে এখন কোনো কথা বলবো না। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মিজানুর রহমানের সাথে সাংবাদিকরা মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এই বিষয়ে নিয়ে পরে কথা বলবো। যবিপ্রবি হতে অস্ত্রগুলিসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী আটকের বিষয়টি যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাহউদ্দিন শিকদার সাংবাদিকদের কাছে ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, উক্ত যুবকের কাছ থেকে ৭ .৬২ বোরের একটি পিস্তল, ৪ রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়েছে। উক্ত যুবক পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন।
ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন,পুলিশের হাতে অস্ত্রগুলি ও ম্যাগজিনসহ গ্রেফতার হওয়া হোসাইন ইছাদ ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের মসিয়ূর রহমান হল শাখার ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ।এমনকি উক্ত যুবক যবিপ্রবি শাখার সভাপতি সুব্রত বিশ্বাসের ঘনিষ্ঠ বলেও শিক্ষার্থীরা নিশ্চিত করেছেন। এ ব্যাপারে ওই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ সভাপতি সুব্রত বিশ্বাসের কাছে ঘটনা জানার জন্য সাংবাদিকরা বহুবার ফোন করলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। এ ব্যাপারে কোতয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম আজমল হুদার সরকারী মোবাইল ফোনে সন্ধ্যা ৭ টা ৫৩ মিনিটে ফোন করা হলে তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে কোতয়ালি মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত আবুল বাশার মিয়ার কাছে তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে ফোন করা হলে তিনি রিসিভ করলে জানতে চাইলে তিনি জানান গতকাল ছুটিতে আসছি। আমি জানিনা। এ ব্যাপারে কোতয়ালি মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক অপারেশন সামসুদ্দোহার ব্যক্তিগত মোবাইলে ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here