আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আছে বলেই দেশের মানুষ শান্তিতে আছে-শেখ আফিল উদ্দিন এমপি

0
38

আরিফুজ্জামান আরিফ।।যশোর-১ শার্শা আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশ ও জাতির উন্নয়নে সল্প সময়ে বাংলাদেশে যে অভূতপূর্ব অগ্রগতি দেখিয়েছেন তা বিরল দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। বর্তমান সরকার দেশে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বিদ্যুৎ, অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান ও যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আছে বলেই দেশের মানুষ শান্তিতে আছে।

তাই কোন মতেই নৌকার বিরোধীতা করা যাবেনা। কেউ মনোনয়ন না মেনে বিদ্রোহী প্রার্থী হলে তাকে বোঝানোর দায়িত্বও নেতাদের।

অনেক বিষয় বিবেচনা করে মনোনয়ন বোর্ড মনোনয়ন দেয়। তাই দলের সিদ্ধান্ত মেনে নেয়াই দলের নেতাকর্মীদের দায়িত্ব। পারস্পারিক ভালবাসা শ্রদ্ধার নামই রাজনীতি। অতীতে দেশের মানুষের ভোটের অধিকার ছিলোনা রাজনীতির অধিকার ছিলনা। নামে গণতন্ত্র থাকলেও মূলত মানুষের অধিকারের গণতন্ত্র ছিলনা। এঅধিকার প্রতিষ্ঠিত করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। আমাদের নেত্রীর প্রতি আল্লাহর অশেষ রহমত আছে বলেই বার বার হামলা ও হত্যা চেষ্টার পরেও আল্লাহ নেত্রীকে মানুষের কল্যাণে কাজ করার জন্য বাঁচিয়ে রেখেছে। তিনি না থাকলে দেশের কি অবস্থা হতো আপনারা তা জানেন। তাই নেত্রীর সুস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করতে আপনাদের প্রতি আহবান জানাই’।

শনিবার বিকালে কায়বা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আয়োজনে চালিতাবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে কায়বা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি চেয়ারম্যান হাসান ফিরোজ আহমেদ টিংকুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি আরো বলেন, আওয়ামীলীগের শক্তি তৃনমূল। তৃনমূলের নেতাকর্মীরা আওয়ামীলীগের প্রাণ। তাই দলকে ভালবেসে সকল কর্মীদের রক্ষা করতে হবে। সাধারন নেতাকর্মীরা শক্তিশালী হলেই দল শক্তিশালী হবে নেত্রী শক্তিশালী হবে। নেত্রী যে সিদ্ধান্ত দেয় তা দলের মঙ্গলের জন্যই দেয়। আমরা যারা নেতাকর্মী আছি তাদের সেই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে নিরলস ভাবে কাজ করতে হবে। সমাজে কিছু খারাপ মানুষ আছে তাদের কাজই মারামারি হানাহানি বাঁধানো। মারামারি হানাহানি বাঁধিয়ে এরা নিজেদের সার্থ হাসিল করে। আপনাদের বুঝতে হবে মারামারি হানাহানিতে আপনাদেরই ক্ষতি। তবে ভাল হয়ে মিলে মিশে বাঁচলে নিজেদেরই লাভ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু, ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুছা মাহমুদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাবলু,সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ,কোষাধ্যক্ষ অহিদুজ্জামান অহিদ, প্রচার সম্পাদক অহিদুল হক পটু, শার্শা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলেয়া ফেরদৌস, বেনাপোল পৌর আওয়ামী লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি আলহাজ্ব এনামুল হক মুকুল, শার্শা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য অহিদুজ্জামান অহিদ, শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার।

অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন উলাশি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আয়নাল হক, বাগআঁচড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ইলিয়াছ কবির বকুল, পুটখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাস্টার হাদিউজ্জামান, গোগা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ, শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসনাইন খুরশিদ মিলন, সাংগঠনিক সম্পাদক আল আমিন রুবেল, কায়বা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি শেখ শহিদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক নাসির উদ্দিন মেম্বর, আওয়ামীলীগ নেতা শওকত আলী, খোরশেদ আলম গাজী, ডাঃ হাবিবুর রহমান হাবিব, শহিদুল ইসলাম ময়না মেম্বর, কামরুজ্জামান বদু মেম্বর, নুর মোহাম্মদ মেম্বর, রফিকুল ইসলাম মেম্বর, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ মাসুদ রানা চঞ্চল, সাধারণ সম্পাদক মিল্টন হাসান সহ ইউনিয়ন আসা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।