আবারও মেসির হাতেই ব্যালন ডি’অর?

0
25

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আবারও মেসি নাকি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো? নাকি কান্তে, জর্জিনিও, চিয়েসা, লেওয়ানডস্কি? তালিকায় আরও আছেন ডনারুমা, নেইমার, ম্যাসন মাউন্ট, হ্যারি কেইন, রোমেলু লুকাকু। কে জিতবেন এ মৌসুমের ব্যালন ডি’অর? বার্সা কোচ রোনাল্ড কোম্যানের মতে, এই ট্রফির জন্য মেসির সামনে নেই কোন প্রতিদ্বন্দ্বী। তবে অ্যালিগ্রি মনে করেন ব্যক্তিগত অর্জনের হিসেবে ক্রিস্টিয়ানোই এগিয়ে। অন্যদিকে শিরোপা আর পারফরমেন্সের ভিত্তিতে জর্জিনিওর হাতে ব্যালন ডি’অর দেখতে চান চেলসি বস থমাস টুখেল।
ফুটবলের ব্যক্তিগত অর্জনের সর্বোচ্চ মুকুট। ২০০৮ সাল থেকে যা নিজেদের সম্পত্তি বানিয়ে রেখেছেন রোনালদো আর মেসি। গেলবার করোনায় বাতিল আর মাঝে ২০১৮ সালে যা জিতেছিলেন লুকা মদ্রিচ। এবারও কি তবে দেখা যাবে চমক! আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যালন ডি’অর ঘোষণার এখনও বাকি ৫ মাসের বেশি। তবুও জমে উঠেছে কথার লড়াই।

এবারও এই সম্মানের বড় দাবিদার ক্ষুদে জাদুকর লিওনেল মেসি। কোপা আমেরিকার গোল্ডেন বুট, পিচিচি ট্রফি ক্লাব বার্সাকে কোপা দেল রে’র শিরোপা। তবে লিওনেলের বড় অর্জন অন্যখানে। অনেকটা একক নৈপুণ্যে আর্জেন্টিনাকে জিতিয়েছেন কোপা আমেরিকার ট্রফি। বার্সা বস কোম্যানের বলছেন, পারফরমেন্সের বিচারে লিওনেলের ধারেকাছেও নেই অন্যরা।
বার্সেলোনার কোচ রোনাল্ড কোম্যান বলেন, ‘কোপা আমেরিকা শুরু থেকেই সে খুব করে চাইছিলো এই শিরোপাটা জিততে। এবারের ব্যালন মেসির এই ট্রফিটা জেতার ব্যাপারে আমি বিন্দুমাত্র সন্দিহান নই।’
নতুন মৌসুমকে সামনে রেখে অ্যালেগ্রির অধীনে আবারও অনুশীলন শুরু করেছে য়্যুভেন্তাস। ছুটি কাটিয়ে সেখানে এখনও যোগ দেননি ক্রিস্টিয়ানো। তুরিনোর ক্লাবটির এবার সিরি আ শিরোপা মিস হলেও ব্যক্তিগত অর্জন সমৃদ্ধ সিআরসেভেনের। য়্যুভদের হয়ে দুই শিরোপা, সিরিয়ায় ২৭ গোল, ইউরোতে গোল্ডেন বুট। বাতিলের খাতায় ফেলে দেয়া যাচ্ছে না রোনালদোকেও।
য়্যুভেন্তাস কোচ ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি জানান, ‘রোনালদো একজন সত্যিকারের যোদ্ধা। ব্যক্তিগত যে মানদন্ডের ওপর ব্যালন ডি’অর দেওয়া হয়, সে হিসাব করলে এই ট্রফিটা রোনালদোরই জেতা উচিত।
কথার এই লড়াইয়ে যোগ দিয়েছেন চেলসি বস থমাস টুখেলও। তার মতে চেলসি তারকা জর্জিনিওই জিততে চলেছেন ব্যালন।
থমাস টুখেল বলেন, ‘দেখুন এ মৌসুমে জর্জি দুইটা ইউরোপিয়ান ট্রফি জিতেছে। যেখানে তার অবদান অনস্বীকার্য। মধ্যমাঠের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সে যেভাবে খেলেছে তাতে আমার মনে হয় নতুনত্ব কিছু আসছে।’
ভোটের ফলাফলের বিচারে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ঘোষণা করা হবে ব্যালন ডি’অর জয়ীর নাম।