ঈদকে সামনে রেখে মণিরামপুরে দর্জি কারিগররা ব্যস্ত সময় পার করছেন

0
403

উত্তম চক্রবর্ত্তী, মণিরামপুর (যশোর): ঈদুল ফিতরের দিনটিকে নিজেকে সাজানোর  ব্যস্ততা এখন সকলের মাঝে। কাপড় কেনা শেষ করে কিশোরী, তরুনী সহ বিভিন্ন বয়সী নারীরা ছুটছেন দর্জিবাড়ি । আর তাদের পছন্দসই একটি পোশাকের জন্য দিন রাত ব্যস্ত সময় পার করছেন মনিরামপুর উপজেলার  রাজগঞ্জ বাজারে দর্জি বাড়ির কারিগররা। ঈদ আসতে আর সপ্তাহ দুয়েক বাকি। রাজগঞ্জ বাজারে দর্জি দোকানগুলো জমে উঠেছে কাপড় কাটা সেলাই করা এবং ট্রায়াল দেয়ার কাজে। দর্জিরা কেউ ব্যস্ত দোকানে আসা কাস্টমারদের কাপড়ের অর্ডার নিতে, আবার কেউ ব্যস্ত কাস্টমারদের কাপড়ের মাপ বুঝে নিতে। ক্রেতাদের  মনের মতো সুন্দর সব পোশাক বানাতে এমনিভাবে দর্জিরা সবাই ব্যস্ত থাাকবেন চাঁদ রাত পর্যন্ত। রাজগঞ্জ বাজারে শোভা ড্রেস সেন্টার এডœ বোরকা ঘরের প্রোঃ মোঃ আসাদুজুমান আসাদ বলেন, প্রচলিত ধারায় সালোয়ার কামিজের পাশাপাশি এবারে মেয়েরা ফ্লোর টাচ বা গাউন বেশি বানাচ্ছে । গত দুই ঈদ থেকে এবারের ঈদে গাউন বেশি চলছে। আমার টেইলার্সে এবার গাউনের অর্ডার বেশি। এবারে এটাই হাল ফ্যাশন হিসাবে চলবে। পোশাকের অর্ডারের বিষয় তিনি বলেন, আমরা আজ ১৬ রোযার পরে আর অর্ডার নেব না। তবে খুব ইমার্জেন্সি সেক্ষেত্রে ১৬ রোযার পরেও অর্ডার নিলে মজুরী বেশি পড়বে। রাজগঞ্জ বাজারে শান্তা টেইলার্সের দর্জি আয়ুব হোসেন বলেন, এবারে ঈদে গাউনটা বেশি চলছে। কিশোরী ও তরুনীরা গাইন বেশি বানাচ্ছে। আর সালোয়ার কামিজের অর্ডার তো আমরা সারা বছরই পাই। পাশাপাশি   সালোয়ার কামিজ ও সেরাই করছি। সেক্ষেত্রে সঙ্গে চলছে লং কামিজ ও লেহেঙ্গা। রাজগঞ্জ বাজারে কাপড় বানাতে আসা একজন ক্রেতা শানজাদা আফরিন সেজনী বলেন,  একটি সালোয়ার কামিজ ও একটি গাইনের অর্ডার দিয়েছি। গাউন অনেক ফ্যাশনেবল একটি পোশাক। তবে মজুরী বেশি তাই বানানোর খরচ একটু বেশি পড়ল। মজুরী কম হলে ভালো হত। রিমা ও বিষ্টি বলেন, সালোয়ার কামিজ ও গাউন বানাতে দিয়েছি। গাইন দেখতে খুবই সৃুন্দর একটি পোশাক। আমাদের মতো অনেকে বানাচ্ছে। এদিকে কাস্টমারদের ন্যায্য মূল্য সেবা দানের লক্ষ্যে সংশিাøষ্ট কর্তপক্ষ নতুন মজুরী তালিকা নির্ধারণ করেছেন। সে তালিকা অনুযায়ী সুতি সালোয়ার কামিজ ৩২০ টাকা, জর্জেট সালোয়ার ৩৫০ টাকা,কামিজ ২০০ টাকা, লাইলিং কামিজ সালোয়ার সহ ৫৫০ টাকা, স্কুল কামিজ বেল সহ ৩৫০ টাকা, স্কাপ ড্রেস ৩৫০ টাকা, মেক্সি বোরকা ৩৫০ টাকা, কুচি বোরকা পাট ৪৫০ টাকা, কার্ডিগান ৩৫০ টাকা, গাইন বোরকা ২ পাঠ ৭০০ টাকা, আনার কলি ৭৫০ টাকা। মৌচাক ফোরাক ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা । মাসাককালি জিপসি পাখি ড্রেস ৭৫০ টাকা, লেহে্গংা ৭০০ টাকা, ঘটি প্যান্ট ১২০ টাকা, শাড়ির পাড় ২৫০ টাকা, মিন যেস শার্ট ২৫০ টাক, মেক্সি বিফ কার্ড ব্লাউস ডিজাইনি অনুযায়ী ২৫০ টাকা, পেডিকোড ১০০ টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here