উচ্চ আদালত নিয়ে মন্তব্যে নেতাদের সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী

0
239

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিচারপতি অভিসংশনের ক্ষমতা সংসদের হাতে থাকা অবৈধ ঘোষণা করে উচ্চ আদালতের দেয়া রায়ের বিষয়ে জাতীয় সংসদের বাইরে কথা বলার ক্ষেত্রে দলীয় নেতা ও সংসদ সদস্যদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘উচ্চ আদালতের রায় নিয়ে সংসদের বাইরে কথা বললে সেটা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হতে পারে। এ ব্যাপারে সবাই সতর্ক থাকবেন।’

এসময় আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য আবদুল মতিন খসরুকে জাতীয় সংসদে উচ্চ আদালতের দেয়া এ রায় সম্পর্কে আইনি ব্যাখ্যা তুলে ধরার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

শনিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা নিশ্চিত করেছেন।

গত ৩ জুলাই উচ্চ আদালতের বিচারকদের অপসারণ ক্ষমতা সংসদের হাতে অর্পণসংক্রান্ত সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীকে অবৈধ ও বাতিল ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেয়া রায় বহাল রাখে সর্বোচ্চ আদালত। হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিলের শুনানি করে প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার নেতৃত্বাধীন সাত বিচারকের আপিল বিভাগ ঐক্যেমতের ভিত্তিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

উচ্চ আদালতের রায়ের প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাদের কাছ থেকে বিভিন্ন মন্তব্য এসেছে। এ ব্যাপারে গত সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী প্রথমে সতর্ক করেন। আজ দলের নেতাদের সতর্ক করলেন।

বৈঠকে উপস্থিত নেতারা জানান, আইন বিষয়ক সম্পাদক আবদুল মতিন খসরু বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপন করেন। তিনি বলেন, উচ্চ আদালতের দেয়া পূর্ণাঙ্গ রায়টি এখনো প্রকাশ হয়নি। তাই এ ধরনের স্পর্শকাতর বিষয়ে বিস্তারিত না জেনে কথা না বলাই ভালো।

পরে কার্যনির্বাহী সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম আইন অঙ্গনে দল সমর্থক আইনজীবীদের অবস্থানগত দুর্বলতার কথা বলেন। একই ধরনের কথা বলেন আরেক কার্যনির্বাহী সদস্য নজিবুল্লাহ হিরু। তিনি বলেন, আমি বারবার বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চেয়েছি। আমাদের অবস্থান দুর্বল থাকায় কিছু করা যায়নি।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিষয়েও কথা বলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। দলীয় নেতাদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে অংশগ্রহণমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক। এজন্য সবাইকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। মানুষের ঘরে দলের প্রচার করতে হবে।

তিনি ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় আওয়ামী লীগ সমর্থকরা প্রাপ্তবয়স্ক ভোটাররা যেন বাদ না পড়ে সে বিষয়ে দলীয় নির্দেশনা দেন শেখ হাসিনা। নিজ নিজ এলাকায় প্রাপ্তবয়স্করা যেন স্বতস্ফূর্তভাবে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয় সে বিষয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি। দলীয় সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম আরও গতিশীল করার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেন তিনি। বৈঠকে শোক মাস আগস্টজুড়ে দলের বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here