একজন গাছের ফেরিওয়ালার গল্প

0
200

ডি এইচ দিলসান : একজন গাছের ফেরিওয়ালা,স্বপ্ন তার সারা দেশের প্রতিটা রাস্তার ধারে পতিত জমিতে দেশের বিলুপ্ত প্রায় বৃক্ষ রোপন করে একটি দেশের চাহিদা অনুযায়ী ২৫ শতাংশ বনভুমি ফিরিয়ে দেওয়া, যেখানে এ দেশে আছে ১৬ শতাংশের কম।
বলছি যশোর সদর উপজেলার ফরিদপুর এলাকার লুকমান হোসেনের ছেলে এম এম কলেজের ছাত্র জাকারিয়া হোসেন কথা। জাকারায়িা গত জুলাই মাসের ১০ তারিখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি চত্ত্র থেকে বের হয়ে এখন পর্যন্ত দেশের বিভন্ন এলাকায় সাইকেল চালিয়ে ৪ হাজার ৩শত গাছের চারা রোপন করেছেন। এ বছর তিনি ১০ হাজার গাছ লাগাবেন ।
তিনি বলেন,আমি যশোরের কৃষি অফিসারসহ বেশ কিছু মানুষের সহযোগিতা এবং নিজের প্রবল ইচ্ছা শক্তির কারনেই তিনি সারা দেশের প্রতিটি কোনায় কেনায় গিয়ে গাছ লাগানোর কাজটি করছেন। সাইকেল চালিয়ে এক জেলা থেকে অন্য জেলায় ছুটে চলা এই জাকারিয়র স্বপ্ন একদিন এ দেশও ২৫ শাতাংশ বনভুমি হবে, অনাগত শিশুরা বুক ভরে বিশুদ্ধ অক্সিজেন গ্রহন করবে।
তিনি বলেন আমি আমের আঠিসহ তালের আঠি ও বিভন্ন গাছের বিজও সংগ্রহ করছি, চারা গাছের পাশাপাশি এই বীজগুলো রোপন করছি আমি। প্রতি বছর ১০ হাজার গাছের চারা এবং ১০ হাজার বীজ রোপন করে বছরে ২০ হাজার গাছের জীবন দিতে পারলে খুব বেশি দিন গালবে না, এ দেশকে সবুজে ভরে দিতি বলে তিনি মনে করেন। তিনি বলেন আমার পাশাপাশি আপনারা সবাই কমপক্ষে ১ টি করে গাছ লাগান, তাহলে এ বছরেই বনভুমির চাহিদা অনেকটাই পরুন হবে।