করোনাকালে যশোরের প্রান্তিক কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছেন সাংস্কৃতিক কর্মীরা

0
91

নিজস্ব প্রতিবেদক : যখন করোনার করাল গ্রাসে নিমজ্জিত গোটা পৃথিবী, তখন বরাবরাই ন্যায় এবারও যশোরের প্রান্তিক চাষিদের ধান কেটে দিচ্ছে সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা। জেলা সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে শুক্রবার সকাল ৭টা থেকে তারা এ ধান কাটা কার্যক্রম শুরু করেছে। প্রথম দিনে যশোর সদর উপজেরার পতেঙ্গালী গ্রামের বর্গাচাষি ইমরান হোসেনের ২৫ কাঠা, পঙ্কজ বিশ্বাসের নিজের জমির ৮ কাঠা, কালাম গাজীর ১২ কাঠা, আনসার আলীর ৬ কাঠা, ফারক গাজীর ৮ কাঠা এবং কৃষ্ণবাটি গ্রামের সাইদুর রহমানের ১০ কাঠা ধান কেটে দেয় সাংস্কৃতিক কর্মীরা।
এদিকে অর্থ সংকট ও শ্রমিক সংকটের এ সময়ে বিনাপয়সায় ধান কাটাতে পেরে খুশি চাষিরা। অন্যদিকে প্রান্কি কৃষকের ধান কেটে দিতে পেরেও প্রশান্তিতে যশোরের সাংস্কৃতিক কর্মীরা।
ধান কাটা দলের মধ্যে অন্যতম ছিলেন যশোর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তরিকুল ইসলাম তারু, সাধারন সম্পাদক সানোয়ার আলম খান দুলু, শিল্পকলা একাডেমির সাধারন সম্পাদক মাহামুদ হাসান বুলু, জোটের অন্যতম নেতা সুকুমার দাস, হারুন আর রশিদ, নন্দন যশোরের সাধারন সম্পাদক ডি এইচ দিলসান, সংবাদিক নেতা প্রনব দাসসহ যশোরের অর্ধশতাধীক সাংস্কৃতিক কর্মী উপস্থিত ছিলেন।
সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের নেতা হারুন আর রশিদ বলেন, “করোনার প্রভাবে মানুষ ঘরবন্দি। এ অবস্থায় কৃষকের ধান পেকে গেছে। কিন্তু শ্রমিক সংকটে মাঠ থেকে ধান ঘরে নিতে পারছে না কৃষকরা। ইতোমধ্যে কৃষকদের ধান ঘরে তুলে দিতে কাজ শুরু করেছে বিভিন্ন সংগঠন ও রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা। তারই ধারাবাহিকতায় যশোরে প্রান্তিক চাষিদের ধান কেটে দিচ্ছে সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা। তিনি বলেন আমরা দেশের ক্রান্তিকালে সব সময় সাধারন মানুষের পাশে ছিলাম , আছি এবং থাকব।