করোনা পরিস্থিতিতে সীমিতভাবে মধুজয়ন্তী পালন করছে যশোর জেলা প্রশাসক

0
52

প্রথমবারের মতো জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় স্থানীয় সংবাদপত্রে ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক :মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৮তম জন্মবার্ষিকী করোনা পরিস্থিতির কারণে সীমিতভাবে উদযাপন করা হবে। এবছর থাকছে না মধুমেলা কিংবা বিস্তৃত পরিসরের আয়োজন। ২৫ জানুয়ারি মহাকবির জন্মদিনে সাগরদাঁড়িতে মাত্র একদিনের কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মধুজয়ন্তী উদযাপন করা হবে।

তবে এবছর প্রথমবারের মতো জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় স্থানীয় সংবাদপত্রে ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হবে। এজন্য অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক-শিক্ষা ও আইসিটি মো. মনোয়ার হোসেনকে আহ্বায়ক এবং ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, দীপংকর দাস রতন, কবি খসরু পারভেজ ও তহিদ মনিকে সদস্য করে একটি সম্পাদনা পর্ষদ গঠন করা হয়েছে।

২৫ জানুয়ারি বিকাল সাড়ে ৩টায় সাগরদাঁড়িতে মধুকবির প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু হবে। এরপর আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। যশোর থেকে স্বল্প পরিসরের একটি সাংস্কৃতিক দল উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করবে।

মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৮তম জন্মবার্ষিকী উদযাপনের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আজ বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) যশোর কালেক্টরেট সভাকক্ষে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক হুসাইন শওকতের সভাপতিত্বে সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আলোচনায় অংশ নেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক-সার্বিক মো. রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক-শিক্ষা ও আইসিটি মো. মনোয়ার হোসেন, কেশবপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরাফাত হোসেন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সুকুমার দাস, প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, প্রেসক্লাব যশোরের সাংস্কৃতিক সম্পাদক তহিদ মনি, তির্যক যশোরের সাধারণ সম্পাদক দীপংকর দাস রতন, কেশবপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আশরাফউজ্জামান, কবি খসরু পারভেজ, অ্যাড. আবুবকর সিদ্দিকী প্রমুখ।