কলকাতা থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে CRPF হেডকোয়ার্টার

0
265

ম্যাগপাই নিউজ ডেক্স : : সুকমা হামলার জেরে সিআরপিএফের কমান্ড হেডকোয়ার্টার কলকাতা থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হল ছত্তিসগড়ে। মাত্র দু’মাসের ব্যবধানে ছত্তিসগড়ে মাওবাদী হামলায় ৩৭ জন সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সুকমায় বেশ বড়সড় হামলা চালায় মাওবাদীরা। এরপরেই এই সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র।

গত ৪ মে সিআরপিএফের তরফে এই বদলির নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। সিআরপিএফের সেন্ট্রাল জোনের হেডকোয়ার্টার ছিল কলকাতায়। সেটাই সরিয়ে নিয়ে যাওয় হচ্ছে ছত্তিসগড়ে। বছর সাতেক আগে রায়পুর থেকে কলকাতায় নিয়ে আসা হয়েছিল এই হেডকোয়ার্টার। যাতে পশ্চিমবঙ্গে মাও দমনে অনেক সুবিধাও পায়।

সোমবারই স্বারষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং-এর সঙ্গে মাও দমনের বিষয়ে ১০ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক হওয়ার কথা। তার আগেই কলকাতা থেকে ও ওই হেডকোয়ার্টার সরিয়ে নিয়ে গিয়ে রায়পুর থেক কাজকর্ম শুরু করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সিআরপিএফের নতুন ডিরেক্টর জেনারেল রাজীব রাই ভাটনগরকে। সেন্ট্রাল জোনের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর কুলদীপ সিং ইতোমধ্যেই কলকাতা ছেড়ে রায়পুর রওনা হয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, ছত্তিসগড়, ওড়িশা, মধ্যপ্রদেশ, বিহার ও উত্তরপ্রদেশের বিস্তৃত মাও অধ্যুষিত এলাকায় অপারেশন চালানোর জন্য ২০০৯ সালের ৭ অগাস্ট সেন্ট্রাল জোন তৈরি হয়। ২০১০-এ এই জোনের হেডকোয়ার্টার নিয়ে আসা হয় কলকাতায়, যাতে রেল ও আকাশপথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে সুবিধা হয়।

গত ২৪ এপ্রিল মাওবাদী হামলায় সুকমার জঙ্গলে শহিদ হন ২৫ জন সিআরপিএফ জওয়ান। সিআরপিএফের উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের মতে, কলকাতায় থেকে কোনও অভিযানে লাভ হচ্ছে না। অন্যদিকে, ছত্তিসগড়ে মাও প্রতিপত্তি বেড়েই চলেছে। সুকমা হামলার পর সিআরপিএফকে এয়ারফোর্স, বিএসএফ, আইটিবিপির সঙ্গে বৈঠকের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সব বাহিনী মিলে মাও দমনে বড়সড় পদক্ষেপ নেবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here