কালীগঞ্জে চাঁদনীতে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই চলছে বেচাঁকেনা

0
281

স্টাফ রিপোর্টার,ঝিনাইদহ : কয়েক বছর আগে চাদনীর ভবন ধ্বসে মারা গেছেন ১ জন। আর মাথা, হাত,পা কেটে যে কতজন জখম হয়েছে তার কোন সঠিক হিসাব নেই। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের সমাগম এ ভবনটি যে কোন সময় ধসে প্রানহানী সহ বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

এটি হল কালীগঞ্জ বড় বাজারের একমাত্র প্রধান হাট চাদনী। সেখানকার ব্যবসায়ীদের অভিযোগ কয়েক বছর আগেও চাদনীর ছাদ ভেঙ্গে অজয় সাহা নামের এক ব্যবসায়ী নিহত সহ ৫/৬ জন আহত হয়েছিল। সেই থেকেই ব্যবসায়ীরা এটি সংস্কার বা ভেঙ্গে নতুন বহুতল মার্কেট গড়ে তোলার দাবী জানালেও তা আজও বাস্তবায়ন হয়নি।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, আশির দশকে কালীগঞ্জ পৌর শহরের বড় বাজারে একতলা বিশিষ্ট হাট চাদনিটি তৈরি করা হয়। পরে তার উপর তলায় কালীগঞ্জ বাজার কমিটির প্রধান কার্ষালয় স্থাপন করা হয়। নিচ তলাতে চাদনীটিতে ১৫৩ টি খোলা (খোপ) দোকান আছে। এক একটি দোখানে ৪ জন করে ব্যাবসায়ীগন ব্যাবসা করছেন। চাদনীটিতে তাদের কেউ চাউল, কেউবা মুদি, কাচা তরকারি, ও মাছ-মুরগি, মাংশের দোকান দিয়েছেন।

২০০৭ সালে হাট চাদনিটিতে ছাদ স্থাপনা নষ্ট হয়ে তা খসে পড়তে শুরু করে। সে সময়ে ছাদ ভেঙ্গে মাথার উপর পড়ে একজন ব্যবসায়ী ঘটনাস্থলে মারাও যায়। এর পর থেকে ব্যবসায়ীরা জীবন বাচতে মাথার উপর বাশ চাটাই দিয়ে কোনমতে ঝুকির মধ্যেই ব্যাবসা চালিয়ে আসছে। সে সময়েই স্থাপনাটি পরিত্যাক্ত করা জরুরী হলেও জীবন জিবিকার প্রয়োজনে তা পরিত্যক্ত করা হয়ে উঠেনি। কিন্তু তার জরুরী সংস্কার করা না হলে সামনে অপেক্ষা করছে আরো বড় ধরনের দূর্ঘটনা।

ব্যাবসায়ীরা আরো জানায়, ভবন সংস্কার ও নির্মানে তারা পৌর মেয়র, সংসদ সদস্য সহ স্থানীয় প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে ধর্ণ্যা দিয়ে আসছেন। সে সময়ে পৌর কর্তৃপক্ষ প্রতি ব্যবসায়ী ১ লক্ষ টাকা করে পৌর ফান্ডে জমা দিলে এটি বহুতল মার্কেট করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু সে প্রতিশ্রুতিও মুখেই রয়ে গেছে। আজও তা বাস্তবায়ন হয়নি।

ব্যবসায়ীরা বলেন তারা পেটের তাগিদেই বর্তমানে জীবন হাতে নিয়েই ব্যবসা করছেন। কালীগঞ্জ হাটচাদনী সমিতির সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন মনি জানান, এই চাদনীতে প্রায় ৮১৫ জন ব্যবসায়ী সকলেই জীবনের ঝুকি নিয়ে ব্যবসা করে। প্রায়ই ছাদ ধসে পড়া সহ মাছ ও মুরগী বাজারে টিনের ছাউনি ফুটো হয়ে গেছে। তারা এটি সংস্কার ও বহুতল মার্কেট করার জন্য পৌরসভা ও প্রশাসনের কাছে দাবি করে আসছেন।

কালীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আলহাজ¦ মকছেদ আলী জানান, পুরাতন হাট চাদনিটি সত্যিই জনার্কীর্ণ ও ঝুকিপুর্ণ। তিনি ক্ষমতা গ্রহনের পর থেকেই এটি বড় ও বহুতল মার্কেট করার জন্য বিভিন্ন দপ্তরে চেষ্টা চালাচ্ছেন। এ বিষয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার বলেন, এটি একটি জনগুরুত্বপূর্ণ প্রধান হাট চাদনী।

যেখানে সবসময় সহ¯্রাধিক দোকান ব্যাবসায়ী সহ হাজার হাজার ক্রেতা সাধারনের আগমন ঘটে। তারা অনেক বড় জীবনের ঝুকি নিয়েই চলছেন। তিনিা জানান, এটি নির্মানে বড় ধরনের সরকারি বরাদ্দ প্রয়োজন। এ জন্য তিনি অনেক আগে থেকেই সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে যোগাযোগ করে যাচ্ছেন। বরাদ্ধ পেলেই এটি নির্মানের উদ্যোগ নিবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here