ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে যশোর অঞ্চলে হালকা বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া বইছে,জনমনে আতংকে

0
112

জাহিদ হাসান:ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে যশোর অঞ্চলে হালকা বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া বইছে।শুক্রবার দুপুরের দিকে যশোর জেলার বিভিন্ন এলাকায় গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হলে মানুষের মাঝে কিছুটা উদ্বেগের সৃষ্টি হয়।ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতের আশংকায় সাধারণ মানুষ রাস্তায় চলাফেরা কমে গেছে।এদিকে যশোর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সুপারের পাশাপাশি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী ঘূর্ণিঝড় ফণীর মোকাবেলায় সকল প্রকার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।পাশাপাশি জেলার ৮ উপজেলা শার্শা,ঝিকরগাছা,চৌগাছা,সদর,কেশবপুর,মনিরামপুর,বাঘারপাড়া ও অভয়নগর জনসাধারনকে নিরাপদে আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছে বলে জেলা প্রশাসক জানিয়েছেন। প্রতিটি উপজেলায় কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে,এছাড়াও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের আইসিটি শাখায় মিড়িয়া সেল খোলা হয়েছে।
যশোর জেলা ত্রাণ কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম জানান,দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার কমিটি সভা করে ফণী মোকাবেলার সব প্রস্তুুতি নেওয়া হয়েছে।জেলায় ৮টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে।একই সঙ্গে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাকা দালান,গ্রামের পাকা বাড়িতে মানুষকে আশ্রয় নেওয়ার জন্য মাইকিং করা হয়েছে।পর্যাপ্ত ত্রাণ সামগ্রী মজুদ রাখা হয়েছে।
এ ব্যাপারে যশোর রেডক্রিসেন্ট জেলা ইউনিটের সম্পাদক জাহিদ হাসান টুকুন বলেন, পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমরা এক হাজার কর্মী কাজ করছে।সব ধরনের ক্ষতি মোকাবেলায় আমরা মাঠে থাকবো।প্রাথমিক চিকিৎসা সহ শুকনো খাবার নিয়ে আমরা পৌছে যাবো দূর্গতদের পাশে।তিনি আরো বলেন,যদি বড় ধরনের ক্ষতি সাধন হয় তাহলে আমরা জেলা প্রশাসনের সহযোগিতা এবং আমাদের নিজস্ব ফান্ড থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করবো।
জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন,ঘূর্ণিঝড়‘ফণী’র আঘাত সম্ভাব্য ক্ষতি মোকাবিলায় আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি।ইতমধ্যে আমাদের সকল কর্মকর্তাদের নিয়ে আমরা এই দূর্যোগ মোকাবেলা ও করণীয় তা আলোচনা করেছি।সম্ভাব্য ক্ষতি এড়ানো এবং জানমাল রক্ষায় জেলার আট উপজেলাতেই মাইকিং করা হচ্ছে।বাতিল করা হয়েছে সরকারি কর্মকর্তাদের সব ধরনের ছুটি।এ ছাড়া প্রস্তুত রাখা হয়েছে পর্যাপ্ত ত্রাণ সামগ্রী।
তিনি আরো বলেন জেলা সদরসহ ৮টি উপজেলায় একটি করে কন্ট্রোল রুম খোলা এবং মেডিকেল টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সকল সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিলসহ রেড ক্রিসেন্ট,ফায়ার সার্ভিস ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার কয়েকশ স্বেচ্ছাসেবকদের প্রস্তুত থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here