চৌগাছায় ছাত্রলীগ নেতারাই অসহায় কৃষকের ধানকাটা শ্রমিক

0
623

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি

এবার যশোরের চৌগাছায় অসহায় কৃষকের ধান কেটে দিল উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। বৃধবার সকালে উপজেলার মাড়ুয়া গ্রামের একজন কৃষকের দেড় বিঘা জমির ধান কেটে বাড়ি পর্যন্ত পৌছে দিলেন নেতৃবৃন্দ।

করোনা মহামারির প্রার্দূভাব এবং লকডাউনের কারনে ধান কাটা নিয়ে বিপাকে পড়া কৃষকের পাশে দাড়াতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই নির্দেশকে কার্যকর করতে ২৭ এপ্রিল যশোর জেলা ছাত্রলীগের নব নির্বাচিত সভাপতি সালা উদ্দীন কবির পিয়াস ও সাধারন সম্পাদক তানজিব নওশাদ পল্লব জেলার প্রতিটি ইউনিটকে অসহায় কৃষকদের পাশে দাড়িয়ে তাদেরকে সাহায্য করার জন্য নির্দেশ দেন। শুধু নির্দেশ দিয়েই থেমে থাকেননি তারা। যশোর জেলা ছাত্রলীগের সকল ইউনিটকে উৎসাহিত করতে বুধবার সকালে কাস্তে হাতে পিয়াস,পল্লবসহ অন্যান্য ছাত্রনেতারাও দাড়িয়েছেন অসহায় কৃষকের পাশে। কেটে দিয়েছেন তাদের পাকা ধান।

উল্লেখ্য জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ,অসহায় মানুষের প্রতি মমত্ববোধ সবকিছু মিলিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো চৌগাছা উপজেলাতেও কাস্তে হাতে কৃষকের পাশে দাড়িয়েছে উপজেলা ছাত্রলীগের এম এ করিম, রুবেল হুসাইন, এইচএম ফিরোজ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সাধারন সম্পাদক শফিউর রহমান রাথিক মৃধা,সোহেল রানা,আবিদুজ্জামান জিসান,তরিকুল ইসলাম,সাফায়েত হোসেন আকাশ,তাহমিদ শাকিল,ইমরান খান,রিংকন,আরিফ হোসেন,জনি,তানভিরুজ্জামান তানভির,মিহিন,জাহিদ,মাসুদ,রাসেল,সিপন কুমার,জয়ন্ত কুমার,অমতি সরকার,ইয়াসিন,বাবু,জহুরুল,অন্তু,নিলয়রা। বুধবার সকাল থেকেই তারা উপজেলার জগদীশপুর ইউনিয়নের মাড়ুয়া গ্রামের ইসরাইল হোসেনের দেড় বিঘা জমির ধান কেটে দিলেন। মাঠ থেকে ধান কেটে কৃষকের বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছেও দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ বলেন, মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় , সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্য ও যশোর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন কবীর পিয়াশ ও সাধারণ সম্পাদক তানজিব নওশাদ পল্লব জামানের নির্দেশনা মোতাবেক শ্রমিক সংকট দূর করতে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে উপজেলা ছাত্রলীগ। আমরা সারা দিন রোজা রেখে কৃষকের ধান কেটে তার বাড়িতে ট্রলিতে করে পৌঁছে দিয়েছি। উপজেলাসহ প্রতিটি ইউনিয়নের সব ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে কৃষকদের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিতে। কৃষকদের প্রতি তাদের এই কাজ অব্যাহত থাকবে। উপজেলার কোনো কৃষকের প্রয়োজনে তাদের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করার অনুরোধ জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

চোখের পানি সংবরন করে কৃষক ইসরাইল বলেন, সবাই যদি এভাবে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ মেনে চলে তাহলে তো আর দেশে কোনো ঝামেলা থাকার কথা না। তারই নির্দেশে আজ এই ছাত্রলীগের ছেলেরা আমার পাশে দাড়িয়ে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করলো। আল্লাহ যেনো শেখ হাসিনাকে বাচিয়ে সুস্থভাবে রাখে এবং এই ছেলেদের মঙ্গল করেন।