জামায়াত আমীরের ছেলের বিরুদ্ধে প্রতারনামূলক বিয়ের অভিযোগ !

0
431

চৌগাছা যশোর থেকে

যশোরের চৌগাছায় জামায়াত আমীরের ছেলের বিরুদ্ধে ভূয়া বিয়ে করে প্রতারনার অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী নারী। অভিযুক্ত আব্দুর রহমান চৌগাছার স্বরুপদাহ ইউনিয়ন জামাতের আমীর এবং আন্দারকোটা মহিলা দাখিল মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক মাওলানা আবু বকরের ছেলে। সাবেক শিবির ক্যাডার আব্দুর রহমান বর্তমানে বরিশাল গৌরনদিতে ইবনে সিনা কোম্পানি’র মার্কেটিং-এ কর্মরত আছেন।

ভূক্তভোগী নারী জানিয়েছেন,দেড় বছর আগে আব্দুর রহমানের সাথে তার পরিচয়। গত বছর (২০২০) ১৪ এপ্রিল আব্দুর রহমান তাকে যশোরে নিয়ে ভূয়া বিয়ে করেন। বিয়ের পরবর্তী আব্দুর রহমান ওই নারীর কর্মস্থলে আসা যাওয়া ও রাত্রী যাপন করতে থাকেন। কিছুদিন পরে তিনি জানতে পারেন যে তার বিয়ের কাবিন ভ’য়া। তখন স্থানীয়ভাবে চলতি বছর (২০২১) ১মার্চ আবারো তাদের বিয়ে হয়। ২য় বিয়ের পরবর্তী তিনি গর্ভবতী হন। কিন্তু আব্দুর রহমান হঠাৎ করেই গত ১৪ মার্চ তাকে তালাক দিয়েছে বলে জানান তিনি। তবে তালাক নোটিশ এখোনো হাতে পাননি বলেও উল্লেখ করেন। উপায়ান্তর না পেয়ে তিনি বাচ্চাটি নষ্ট করতে বাধ্য হয়েছেন। ভূক্তভোগী তার স্বামী আব্দুর রহমান, তার পিতা জামায়াত আমীর আবু বকর,মা শামসুন্নাহার এবং তার বোন আসমার বিরুদ্ধে গত ২১ মার্চ বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট চৌগাছা আমলী আদলতে একটি মামলা দায়ের করেন। এছাড়াও ভুক্তভোগী তার দু’বারের স্বামী আব্দুর রহমানের বিরুদ্ধে অন্য আরো একটি মামলা করেছেন বলে জানিয়েছেন।

ঘটনার বিষয় সম্পর্কে জানতে আব্দুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রথমেই বিয়ের ঘটনাটি মিথ্যা বলে দাবী করেন। বিয়ে করেননি বললেও আব্দুর রহমান বলেন আমরা ফ্রেন্ড ছিলাম এবং প্রেগন্যান্ট হওয়ার কোন সুযোগ নেই। আপনি কিভাবে এতো নিশ্চিত হচ্ছেন উত্তরে তিনি বলেন,“ আমার আত্ন বিশ্বাস (অভার কনফিডেন্স) আছে”। পরবর্তীতে তাহলে তালাক পাঠিয়েছেন কেনো জানতে চাইলে “পরে কথা বলছি” বলেই ফোন কেটে দেন আব্দুর রহমান।

স্বরুপদাহ ইউনিয়ন জামায়াতের আমীর মাওলানা আবু বকর বলেন,আমি আগে কিছুই জানতাম না। গত ১৫ মার্চের পরে আমি জানতে পারি। ঘটনাটি আমরা সমাধানের জন্য চেষ্টা করছি এবং এ নিয়ে কোনো লেখালিখি না করার জন্য বার বার অনুরোধ করেন।