চৌগাছায় নৌকা প্রতিকের ভোট করায় যুবকের হাত পা ভেঙ্গে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা

0
487

নিজস্ব প্রতিনিধি

যশোরের চৌগাছায় আইদ হাসান তাইজেল (৩৮) নামে এক যুবকের হাত ও পা ভেঙ্গে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। নৌকা প্রতিকের ভোট করার অপরাধে আসাদ খানসহ আরো দুজন সন্ত্রাসী তার হাত ও পা ভেঙ্গে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাইজেল।

আহত তাইজেল উপজেলার জগদিশপুর ইউনিয়নের মাড়ুয়া গ্রামের মৃত ওসমান বিশ্বাসের ছেলে এবং ওই ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক প্রার্থী। বর্তমানে তাইজেল যশোর পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

পঙ্গু হাসপাতালের ডা.আব্দুর রউফ জানিয়েছেন,আহতদের বাম হাত ও বাম পা ভেঙ্গেগেছে। বৃহস্পতিবার রাতেই তার হাত ও পায়ে অস্ত্রপচার করা হয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাইজেল বলেন,“গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে দক্ষিনসাগর গ্রাম থেকে নিজ বাড়িতে ফিরছিলাম। পথিমধ্যে মাড়ুয়া গ্রামে ইউসুফ আলী খান স্কুল এন্ড কলেজের সামনে পৌছালে দেখি ইব্রাহিম খার দোকানের ওখানে আসাদসহ আরো দুজন লুকিয়ে আছে। তখন আমি বলি এই তোরা ওখানে লুকিয়ে আছিস কেনো? এই কথা বলার সাথে সাথে তারা আমাকে আক্রমন করে। তখন আমি দৌড়ে পালাতে চেষ্টা করি। এসময় তারা তাদের হাতে থাকা দা ছুড়ে মারে। আমি মাটিতে পড়ে গেলে আসাদ সাপল আর দা দিয়ে আমার বাম পা এবং বাম হাত ভেঙ্গে দেয়। সেসময় আমার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে আমাকে উদ্ধার করে। ওই রাতেই আমাকে যশোর পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আপনার উপর সন্ত্রাসী হামলার কারন কি উত্তরে তিনি বলেন নৌকা প্রতিকের ভোট করার কারনেই আমার উপর এই সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে।

উল্লেখ আক্রমনকারি আসাদ খান নৌকা প্রতিকের পরাজিত প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক তবিবুর রহমান খানের আপন ভাইপো। আসাদের ভাই আজাদুর রহমান খান এবার বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নিজ চাচার বিরুদ্ধে ইউনিয়ন নির্বাচনে অংশগ্রহন করে পরাজিত হয়েছেন। নির্বাচন চলাকালিন এই আজাদের উপর নৌকা প্রতিকের সমর্থকরা সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছিল।

এঘটনায় চৌগাছা থানার ওসি (তদন্ত) গোলাম কিবরিয়া বলেন,ঘটনাটি আমি শুনেছি। শুক্রবার রাতে এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগও পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।