চৌগাছায় দু’ভায়ের ব্যবসায়িক দ্বন্দ্বে ছেলেসহ বাজার ব্যবসায়িক সমিতির সেক্রেটারি আহত

0
457

বিশেষ প্রতিনিধি

যশোরের চৌগাছায় ব্যবসায়িক দ্বন্দ্বে বড় ভায়ের হামলায় উপজেলা বাজার ব্যবসায়িক সিমিতির সাধারন সম্পাদক ইবাদত হোসেন ও তার ছেলে এ্যাড. ইকবাল কবির অভি আহত হয়েছেন।
বৃহস্পতিবা রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার উপজেলার পাচনামনা গ্রামে তাদের পারিবারিক সালিশের সময় এ ঘটনা ঘটে।
ইবাদত হোসেন চৌগাছা উপজেলা বাজার ব্যবসায়িক সমিতির দীর্ঘ দিনের (১৯৯৪ থেকে অদ্যবধি) সাধারন সম্পাদক। এবং তার ছেলে ইকবাল কবির অভি যশোর জেলা জজ কোর্টে আইনজীবি হিসেবে কর্মরত।
বর্তমানে ইবাদত হোসেন ও তার ছেলে এ্যাড.ইকবাল কবির অভি যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের সার্জিক্যাল ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইবাদত হোসেন বলেন, গত একবছর আগে আমাদের দু’ভায়ের (আমি আর লিয়াকত হোসেন) ব্যবসায়িক মুনাফার (৩২ লাখ) টাকা দিয়ে আমাদের অপর এক ভায়ের কাছ থেকে আমরা জমি কিনি। কিন্তু বড় ভাই লিয়াকত হোসেন আমাকে ফাকি দিয়ে সেই জমি নিজ নামে রেজিস্ট্রি করে নেন। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে লিয়াকত হোসেনের বড় মেয়ে আমাদের একটি সালিশ করে দেন। কিন্তু লিয়াকত হোসেন সেটিও মানতে গড়িমসি করেন। এমনকি তিনি আমার সমস্ত ব্যবসায়িক কাগজপত্র (লাইসেন্স) আটকিয়ে রেখেছেন। এসকল কিছু নিয়ে গতকাল রাতে আমি আর আমার ছেলে লিয়াকত হোসেনসহ অন্যান্য ভায়েরা আমাদের পুরানো বাড়িতে এক সালিশে বসি। সেখানে কথাবার্তার এক পর্যায়ে আমি লিয়াকত হোসেনের কাছে আমার জমির কাগজপত্রসহ অন্যান্য কাগজপত্র ফেরৎ চাইলে লিয়াকত হোসেন “তুই কোনো জমি পাবিনা” বলে আমাকে জুতো দিয়ে মারতে শুরু করেন। এসময় তার ছেলে আজিব মাহমুদ (২৪) এসে আমাকে লাথি মেরে ফেলে দেয়। এসময় আমার ছেলে এ্যাড.অভি ঠেকাতে এগিয়ে আসলে লিয়াকত হোসেনের বড় ছেলে শফিকুল ইসলাম (৩৭) তালা দিয়ে তার চোখের কোনে আঘাত করে। তারা কিল ঘুষি লাথি ও ঘরের তালা দিয়ে পিটিয়ে আমাদেরকে রক্তাত্ত জখম করে। এসময় লিয়াকত হোসেনের ছেলে শফিকুল আমার আঙ্গুলে কামড় দেয়। পরে রক্তাত্ত্ব অবস্থায় আমাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
এরআগে গতমাসে এই বিরোধের জের ধরে লিয়াকত হোসেন এবং তার ছেলে শফিকুল ইসলাম ইবাদত হোসেনের বিয়াই আজিজুর রহমান এডমিরালের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান জোসনা ইলেকট্রনিক্সের গ্লাসে লাথি মেরে দোকানে ঢুকে বিভিন্ন প্রকার ক্ষয়ক্ষতির হুমকি দেয়। ওই ঘটনায় আজিজুর রহমান ৫জুলাই চৌগাছা থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেছিলেন। জিডি নং ২৪০।
এসকল বিষয়ে চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন,“ ঘটনাটি দুই ভায়ের ব্যবসায়িক বিরোধ। প্রাপ্ত তথ্যমতে গতকাল তাদের পারিবারিকভাবে বসাবসির সময় দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ইতিমধ্যে দুপক্ষই অভিযোগ দিয়েছেন। তদন্ত স্বাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।