চৌগাছায় ভ্রাম্যমান আদালতের সরকারি বাওড়ের পাটাবাধ উচ্ছেদ

0
38

বিশেষ প্রতিনিধি

যশোরের চৌগাছায় সরকারি বেড়গোবিন্দপুর বাওড়ে দখলদারদের দেয়া অবৈধ পাটাবাধ উচ্ছেদ করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত।
বৃহস্পতিবার দুপুরে চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইরুফা সুলতানার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে এই পাটাবাধ উচ্ছেদ করা হয়। এসময় তাঁর সাথে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইশতিয়াক আহমেদসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, চৌগাছায় সরকারি বাওড় মৎস প্রকল্পের অধীন বেড়গোবিন্দপুর বাওড়ের উপর দিয়ে বেড়গোবিন্দপুর বাওড়ে যাওয়ার প্রবেশমুখে একটি সেতু রয়েছে। স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে ওই সেতুর মুখে পাটাবাধ দিয়ে বাওড়ের একটি অংশে বাওড় ব্যবস্থাপকের সাথে আঁতাত করে মাছ চাষ করে আসছিল। সেখানে কয়েকবছর আগে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নার্গিস পারভীন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে পাটাবাধ উচ্ছেদ করেন। মাঝে কিছুদিন বন্ধ রেখে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি আবারও সেখানে পাটাবাধ দিয়ে মাছ চাষ করে আসছিল।
স্থানীয়দের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইরুফা সুলতানা সেখানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। আদালত পরিচালনার খবর পেয়ে দখলদাররা ওই স্থান ছেড়ে পালিয়ে যায়। তখন ভ্রাম্যমান আদালত ওই পাটাবাধ উচ্ছেদ করেন।
আদালতের বিচারক চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইরুফা সুলতানা বলেন, সেখান থেকে অবৈধ পাটাবাধ উচ্ছেদ করা হয়েছে। অভিযানের সময় দখলদার কাউকে পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন এটি সরকারি বাওড় এখানে পাটাবাধ দিয়ে অবৈধভাবে মাছ চাষ করার কোন সুযোগ নেই। কেউ পাটাবাধ দিলে আবারও অভিযান চালিয়ে তা উচ্ছেদ করা হবে। প্রয়োজনে এ বিষয়ে নিয়মিত মামলা করা হবে।