চৌগাছায় শেখ হাসিনার নির্দেশে অনড় ছাত্রলীগ। ধানকাটা কর্মসূচি অব্যাহত

0
392

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি

“শুধু বক্তব্য বিবৃতিতে না ছাত্রলীগ মানেই কথা কাজে মিল” কথাটি আবারো প্রমান করলো চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের করিম,রুবেল,ফিরোজ,রাথিকরা। দ্বিতীয় দিনের মতো বৃহস্পতিবারও উপজেলার হাকিমপুর ইউনিয়নের অসহায় কবির হোসেনর ধান কেটে বেধে বাড়ি পৌছে দিলেন তারা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সারাদেশে ছাত্রলীগের যে ধানকাটা কর্মসূচি চলছে যশোরের চৌগাছায় তার দ্বিতীয় দিন পার করছে উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। গত বছরের মতো এ বছরও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে গত বুধবার থেকে করোনা মহামারি ও লকডাউনের কারনে অসহায় হয়ে পড়া কৃষকদের পাকা ধান কেটে বেধে বাড়িতে পৌছে দিচ্ছেন এই সকল ছাত্র নেতারা।

উপজেলা ছাত্রলীগের ২৫ জন নেতাকর্মীকে সাথে নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে হাকিমপুরের কৃষক দুলাল মিয়ার এক বিঘা জমির ধান কেটে ও অন্য ১ বিঘা জমির কাটা ধান বেধে দেন। গতকাল থেকেই উপজেলায় আলোচনায় ছিল ছাত্রলীগের কর্মসূচি। রাজপথের ছুটে চলা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সেই অকুতোভয় ছাত্রনেতারাও যে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দূর্যোগে অসহায় মানুষের পাশে ইস্পাত কঠিন মনোবল নিয়ে আশার সঞ্চার করে, ধানকাটা কর্মসূচি যেনো তারই প্রমান-বলছিলেন উপজেলার রাজনৈতিক বোদ্ধারা।

এক পর্যায়ে কৃষক কবির হোসেন অনেকটাই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, অন্যের চার বিঘা জমি বর্গা নিয়ে ধান চাষ করেছি। এখনই মধ্যে ধান কাটার উপযুক্ত হয়। কিন্তু লকডাউনে শ্রমিক সংকটের কারণে পাকাধান কাটতে পারছিলাম না। এছাড়াও এলাকায় যে শ্রমিক পাওয়া যায় তাদের মজুরি খুব বেশি। আমার এমন অসহায়ত্বের কথা শুনে উপজেলা ছাত্রলীগের ছেলেরা বিনা টাকাই আমার এক বিঘা ক্ষেতের ধান কেটে দেন আর এক বিঘা ধান বেধে জালি দিয়ে দেন। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যেভাবে আমার ধান কাটতে সাহায্য করেছেন তা কখনও ভুলব না।

ছাত্রলীগ নেতা রাথিক মৃধা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের কৃষকদের পাশে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশে চৌগাছায়ও কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছি আমরা।’জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সারাদেশের ন্যায় মির্জাপুরেও কৃষকদের ধান কেটে দিচ্ছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। নেত্রীর নির্দেশে যশোরের চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগ সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত রয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও যশোর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশায় অসহায় কৃষকের পাশে উপজেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ আমরা হাকিপুরে ধান কাটতে গিয়েছিলাম। এ সংকটকালে প্রয়োজনে অন্যদের ধানও কেটে ঘরে তুলে দেবে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা অঅবারো ঘোষনা দিলেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

আজকের ধানকাটা কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা এম এ করিম,রুবেল হুসাইন,এইচ এম ফিরোজ,রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সাধারন সম্পাদক রাথিক মৃধা, ফয়সাল, আবিদুজ্জামান জিসান,তরিকুল ইসলাম,তাহমিদ শাকিল,তানভিরুজ্জামান,আরিফ,মাসুদ,সোহেল রানা,জয়ন্ত কুমার,অসিম রাজ,সিপন,রিংকন,জাহিদ,জনি,হাকিমপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ইঞ্জিনিয়ার রয়েল খান,মোস্তাফিজুর রহমান ও বর্তমান ছাত্রলীগ নেতা সাফফাত হোসেন, ইলিয়াজ হোসেন, কবির হোসেন, সালিম হোসেন, সাখাওয়ার হোসেন, পিন্টু হোসেন, পিন্টু রহমান, সাগর, হোহেল রানা, রেজাউল ইসলাম, ইয়ামিন আহম্মেদ, আরিফ হোসেন, আমিন, তহিদুর রহমান, ফয়সাল, হাবিবুর রহমাম,তৌফিক, মারুফ, মনিরুল প্রমুখ।