চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির উদ্ধৃতি দিয়ে ফেসবুকে অপপ্রচার, থানায় জিডি

0
1000

নিজস্ব প্রতিনিধি

যশোরের চৌগাছায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির উদ্ধৃতি দিয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচারের অভিযোগে থানায় জিডি করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান।

চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান উভয়েই জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। জিডি নং- ১৮১,তারিখ ০৫/০৫/২০২১।

জিডিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান নিজেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের ৪১ বছরের সাধারন সম্পাদক ও বর্তমানে সভাপতি উল্লেখ করে বলেন,“আকতারুজ্জামান,পিতা- আব্দুল বারিক সাং-নগরবর্নী উপজেলা-চৌগাছা,জেলা-যশোর একজন দুষ্কৃতি প্রকৃতির লোক এবং বিএনপির একজন কর্মী। ৫মে গত বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায আকতারুজ্জামান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার নিজস্ব আইডি “এমডি আকতারুজ্জামান” থেকে “যশোর জেলার, চৌগাছা থানা পুলিশ নাকি জামায়াত-বিএনপি লালনপালন করছে! উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জননেতা এসএম হাবিবুর রহমান। কর্র্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।” আকতার নিজ এলাকায় নিজেকে আওয়ামী লীগের একজন কর্মী বলে প্রচার করে ফেসবুকে আওয়ামী সরকার ও দলের বিরুদ্ধে নানা রকম মিথ্যা অপবাদ চালিয়ে থাকে। আমি কখনো পুলিশের বিরুদ্ধে কিছু বলিনি। ভবিষ্যতে এ লোক আমাকে ক্ষতি করতে পারে।” এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জিডিতে উল্লেখ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর ‍মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান বলেন,“ এই আকতারকে আমি চিনি না এবং সে আমার দলের লোকও না। সে আগে বিএনপি করতো। তার সেই পোষ্টার আমি দেখেছি। আর আমি তার কাছে এসব কথা বলতে যাবো কেনো? সে কি ? তার পরিচয় কি?

উল্লেখ্য আকতার তার ফেসবুকের এই স্ট্যাটাসটি যশোরের ডেপুটি কমশিনার (ডিসি) ও যশোরের পুলিশ সুপারকে ট্যাগ করেন।

এ ঘটনা জানতে পেরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সেদিনই চৌগাছা থানায় একটি আকতারুজ্জামানের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করেন।

এ বিষয়ে চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগরে সভাপতির উদ্ধৃতি দিয়ে ফেসবুকে চৌগাছা থানা পুলিশের নামে মিথ্যা অপবাদ রটানোর বিষয়ে সভাপতি নিজেই বাদী হয়ে থানায় একটি জিডি করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এর আগে গত ২৪ এপ্রিল ২০২১, পিতা হাজি মোঃ আব্দুল বারিক বাদী হয়ে নিজ ছেলে এই আকতারের বিরুদ্ধে আরো একটি জিডি করেছিলেন। জিডি নং- ৯৩১।

এ বিষয়ে আকতারুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,“ গত ৪ মে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমানের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে তিনি বর্তমান (নৌকা প্রতিকের) উপজেলা চেয়ারম্যান ও পুলিশের বিরুদ্ধে যা বলেছেন আমি তাই লিখেছি। সেই ভিডিওটিও তার কাছে আছে বলে দাবী করেছেন আকতারুজ্জামন। আর তার বাবার জিডি করা প্রসঙ্গে আকতার বলেন ওটি আমাদের পারিবারিক সমস্যার কারনে তিনি জিডি করেছেন।