জাহাঙ্গীরনগরে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ

0
237

ঢাকা প্রতিনিধি : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোর শিক্ষার্থীদের রোববার সকাল ১০টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একটি জরুরি সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ ছাড়া শনিবার রাতে উপাচার্যের বাসভবনের সীমানাপ্রাচীরের ভেতর থেকে প্রায় ৪০ জন শিক্ষার্থীকে আটক করেছে আশুলিয়া থানার পুলিশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহা প্রথম আলোকে বলেন, শিক্ষক লাঞ্ছনা, ভাঙচুর ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বাদী হয়ে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছে। রোববার সকাল ১০টার মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে হল ছাড়তে হবে।

সড়ক অবরোধের সময় শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশের হামলার ঘটনার জের ধরে শনিবার বিকেলে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন শতাধিক শিক্ষার্থী। প্রায় ৪০ মিনিট অপেক্ষা করার পরও উপাচার্য না এলে শিক্ষার্থীরা প্রধান ফটকের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করেন। এ সময় তাঁরা জানালার কাচ, বাতি ভাঙচুর করেন ও সিসি ক্যামেরা খুলে ঘুরিয়ে দেন। উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি করেন তাঁরা।

পরে রাত ১২টার দিকে উপাচার্যের বাসভবনের ভেতর থেকে প্রায় জনা চল্লিশেক শিক্ষার্থীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। এ ব্যাপারে কথা বলতে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহসিনুল কাদিরকে কয়েকবার ফোন করা হলেও, তিনি ফোন ধরেননি।

গত শুক্রবার ভোর পাঁচটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মশাররফ হোসেন হল-সংলগ্ন সিঅ্যান্ডবি এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নাজমুল হাসান ও মেহেদি হাসান নামের দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের বিচারের দাবি, নিহত শিক্ষার্থীদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান, গতিরোধক, পদচারী-সেতু নির্মাণসহ আরও কয়েকটি দাবিতে শনিবার প্রধান ফটক-সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। এর ফলে মহাসড়কে পাঁচ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে এবং ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়।

অবরোধ চলাকালে সাভার ও আশুলিয়া থানার পুলিশ শিক্ষার্থীদের ওপর রাবার বুলেট, কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে এবং লাঠিপেটা করে। এতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যান। আহত হন সাংবাদিক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী। আহত শিক্ষার্থীদের সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here