জায়েদ খান ও হিরো আলমকে ‘মৃত’ বলছে ফেসবুক!

0
130

অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ১৩ ভোটে পাস করার পরও সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসতে তাকে হাইকোর্ট পর্যন্ত যেতে হয়েছে। বর্তমানে এ নিয়ে নায়িকা নিপুণের সঙ্গে চলছে তার আইনি লড়াই। আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দুজনকেই আপাতত এই চেয়ারের বাইরে থাকতে হবে। তারপরই বিষয়টির সুরাহা হবে।

এরইমধ্যে আজ বৃহস্পতিবার জায়েদ খানের অফিশিয়াল ফেসবুক আইডিতে তাকে রিমেম্বারিং দেখাচ্ছে। সাধারণত কেউ মারা গেলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তার অ্যাকাউন্টটি রিমেম্বারিং করে দেয়। কিন্তু জায়েদ খানের ক্ষেত্রে বিষয়টি ঘটেছে উল্টো। বেঁচে থাকতেই এই নায়ককে ‘মৃত’ বলছে ফেসবুক! ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জায়েদ খানের প্রোফাইলে লিখেছে, ‘আমরা আশা করি যারা জায়েদ খানকে ভালোবাসেন, তারা তাকে স্মরণ ও সম্মানিত করার জন্য তার প্রোফাইল পরিদর্শন করে সান্ত্বনা খুঁজে পাবেন।’

যদিও এ নিয়ে জায়েদ খানের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, কেউ জায়েদ খানের আইডি হ্যাক করে এমন কাণ্ড ঘটাতে পারেন। এর আগেও একই কাণ্ড ঘটেছিল। এর আগে, গত ২১ জানুয়ারিও জায়েদ খানকে ‘মৃত’ দেখায় ফেসবুক। সে সময় এ বিষয়ে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দুইবারের সেক্রেটারি ক্ষোভ ঝেড়ে বলেছিলেন, ‘কাজটি শয়তানে করেছে।’ যদিও একদিন পর তার আইডি থেকে ‘রিমেম্বারিং’ লেখাটি সরিয়ে নেয় ফেসবুক।
এদিকে, আজ শুধু জায়েদই নয়, সোশ্যাল মিডিয়ার আলোচিত বগুড়ার যুবক আশরাফুল আলমকেও ‘মৃত’ বলছে ফেসবুক। বৃহস্পতিবার দুপুরে হিরো আলমের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে দেখা যায়, তাকে রিমেম্বারিং দেখাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আলোচিত এই তারকা। তিনি গণমাধ্যমকে বলেছেন, আমি জানি না কার কি ক্ষতি করেছি। মানুষ একের পর এক আমার পেছনে লেগেছে। আমি ফেসবুক আইডি, পেইজ কিছুই টেকাতে পারছি না। আমার একের পর এক আইডি হ্যাক ও রিপোর্ট মেরে নষ্ট করতেছে।

হিরো আলম বিরক্তি নিয়ে আরও বলেন, ‘কয়েকদিন আগে আমার ফেসবুক আইডিটা ফেসবুকে মৃত ঘোষণা করাইছে, আজ আবার পেইজটা মৃত দেখাচ্ছে। আমি বুঝতেছি না কি কারণে লোকজন আমার ক্ষতি করতেছে। এই মুহূর্তে আমার আর কোনো ফেসবুক আইডি নেই। পেইজটা ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করতেছি।