জয়ার অভিনয়ে মুগ্ধ হয়ে প্রশংসায় শ্রীকান্ত

0
219

জলসা ডেস্ক: তুমি সুন্দর যদি নাহি হও। মনের জানালা ধরে উকি দিয়ে গেছে… এরকম অজস্র আধুনিক ক্লাসিক গানের কণ্ঠ শিল্পী শ্রীকান্ত আচার্য। বাংলা গানে দুই বাংলাতেই তিনি ভীষণ জনপ্রিয়। সম্প্রতি তিনি জয়া আহসান অভিনীত ও ইন্দ্রনীল পরিচালিত শর্ট ফিল্ম ‘ভালবাসার শহর’ দেখেছেন। ছবিটি দেখে এর অভিনেত্রী জয়া আহসানের উচ্চ প্রশংসা করেন তিনি। তিনি বলেন, ‘শি ইজ জাস্ট আউটস্ট্যান্টিং। এ প্রজন্মের অভিনেত্রীদের মধ্যে জয়ার অভিনয় সত্যিই চোখে পড়ার মতো’।

এছাড়াও শ্রীকান্ত ছবিটির প্রতিটি বিষয় নিয়ে অনেক প্রশংসা করেন। তার ভাষ্যে সাম্প্রতিক সময়ে এত ‘সেনসিটিভ’ বাংলা ছবি হয়নি বললেই চলে। ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী নাকি প্রমাণ করেছেন যে, অল্প বাজেটেও এমন অসাধারণ একটি ছবি তৈরি করা যায়। এমনকি একজন গায়ক হয়েও তিনি ছবিটির সঙ্গীত পরিচালক প্রবুদ্ধ বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসা করলেন মন খুলে।

ইউটিউবে প্রকাশিত হওয়ার আগেই ‘ভালবাসার শহর’ ছবিটি দেখেছিলেন শ্রীকান্ত আচার্য। বলেন ব্রিলিয়ান্ট। তাঁর মতে, সাম্প্রতিককালে বাংলা ছবির জগতে এমন উল্লেখযোগ্য কাজ শিল্পীর নজরে পড়েনি। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত, ছবির স্ক্রিপটিং, ক্যামেরার কাজে তিনি মুগ্ধ।

অনেকে হয়তো ভাবতে পারেন যে, ছবিটি বেশ মন ভার করা। কিন্তু আমি বলব, সাম্প্রতিককালে এমন ‘সেনসিটিভ’ বাংলা ছবি হয়নি বললেই চলে। ছবির শেষ দৃশ্যতে, শহরের যে ভগ্ন রূপ দেখিয়েছেন পরিচালক ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী, তা যে কারোর মন খারাপ করে দিতে পারে। কিন্তু, দর্শকরা তা সত্ত্বেও যেন কোথাও একাত্মবোধ করবেন ছবির সঙ্গে।
তিনি নিজে যে শুধুমাত্র গান করেন তাই-ই নয়, সুর রচনাও করেন শ্রীকান্ত আচার্য। তাই ছবিতে যে ভাবে ‘মিউজিক’ ব্যবহার করা হয়েছে, তাতে তিনি মুগ্ধ।

অভিনয়ের ক্ষেত্রে এক এক করে অভিনেতাদের নাম উল্লেখ করলেন শ্রীকান্ত আচার্য। বললেন, ‘‘অরুণদা (অরুণ মুখোপাধ্যায়) তো একজন ভেটেরন অ্যাক্টর। ওঁর অভিনয় নিয়ে কিছু বলার নেই। তবে ঋত্বিক চক্রবর্তীকে ছবিতে খুব কম সময় দেখা গেলেও, প্রতিটি মুহূর্তে সে তার ‘সিগনেচর’ রেখেছে। ছবিতে চমৎকার হিন্দি বলেছে ঋত্বিক। আর জয়ার কথা কী বলব!’

‘ভালবাসার শহর’ ছবির মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় ও প্রতিভাশালী অভিনেত্রী জয়া আহসান। তাঁর কথা বলতে গিয়ে একটি ছোট্ট বাক্যই বললেন শ্রীকান্ত আচার্য— ব্রিলিয়ান্ট।

সব শেষে একটি আর্জি জানালেন শিল্পী শ্রীকান্ত আচার্য। ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরীর মতো পরিচালকরা যদি সামান্য পৃষ্ঠপোষকতা পান, তা হলে এমন ভাল কাজ আরও পাওয়া যেতে পারে বলে মনে করেন তিনি। যেখানে প্রতি সপ্তাহে কোটি টাকার ক্লাবে নথিভুক্ত হচ্ছে নানা ছবি, সেখানে এমন ছবিও মন কেড়ে নিচ্ছে। তিনি বলেন, ‘ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী প্রমাণ করে দিলেন যে, অল্প বাজেটেও এমন অসাধারণ একটি ছবি তৈরি করা যায়।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here