ঝিনাইদহ সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে স্কুলছাত্রসহ ২ জন নিহত

0
252
ঝিনাইদহ সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে স্কুলছাত্রসহ ২ জন নিহত । ফাইল ছবি।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার খোসালপুর সীমান্তে বিএসএফ‘র গুলিতে সোহেল রানা (১৭) ও হারুন-অর রশিদ (১৫) নামে ২ কিশোর নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে বাংলাদেশের বিপরীতে ভারতের কুমারীপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মহেশপুরের বাকশপোতা স্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র সোহেল রানা খোসালপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে। অনদিকে নিহত হারুন-অর রশিদ মহেশপুরের শ্যামকুড় গ্রামের কাউসার আলীর ছেলে।

বিজিবির খোসালপুর ক্যাম্প কমান্ডার আবু তাহের খবরের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি সিভিল সোর্স মারফত দুই বাংলাদেশি কিশোর নিহত হওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছি। তিনি জানান-নিহতদের মধ্যে সোহেল সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। সে বাকশপোতা হাইস্কুলে পড়তো।

তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, গরু পাচারকারীদের খপ্পরে পড়ে নিহত দুই কিশোর ভারতে অভ্যন্তরে ঢুকেছে। দুই কিশোরকে টাকার লোভ দেখিয়ে প্রলুব্ধ করতে পারে বলে তার ধারণা। লাশ দুইটি একটি কলা বাগানের মধ্যে পড়ে আছে বলে সোর্স আমাকে বলেছে, যোগ করেন আবু তাহের। সর্বশেষ পরিস্তিতি নিয়ে খোসালপুর বিজিবি বিওপি ক্যাম্প কমান্ডার আবু তাহের জানান, দুপুর ২টার দিকে আমরা প্রতিবাদ পত্রসহ চিঠি দিতে গিয়েছি, কিন্তু বিএসএফ আমাদের চিঠি রিসিভ করছে না।

বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহ খালিশপুর ৫৮ বিজিবির অধিনায়ক লে: কর্নেল জিল্লুর রহমান জানান, মহেশপুরের খোসালপুর সীমান্তের বিপরীতে দুই জন নিহত হওয়ার খবর শুনে আমি সীমান্তের দিকে রওনা হয়েছে। তবে নিশ্চিত হয়ে আপনাদের বলতে পারবো। মহেশপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশাফুর রহমান জানান, আমি ট্রেনিংয়ে বরিশাল আছি। তবে সাংবাদিকদের মাধ্যমে সীমান্তে দুই জন হত্যার খবর পেয়েছি। তবে পুরোপুরি নিশ্চিত হতে পারেনি।

মহেশপুর থানার ওসি আহম্মদ কবির জানান, আমিও এ ধরনের উড়ো খবর পেয়েছি। তবে বিজিবির পক্ষ থেকে এখনো কিছু জানানো হয়নি। এদিকে সীমান্তের খোসালপুর গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ারুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার ভোরের দিকে ভারতের কুমারীপাড়া বিএসএফ ক্যাম্পের অধীনে এ ঘটনা গটে। আজ সকালেই আমরা লোকমুখে কানাঘুষা করতে দেখি। মহেশপুরের নেপা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শামছুল হক মৃধা জানান, খোসালপুর সীমান্তে দুই জন নিহত হওয়ার খবর পেয়েছি। তবে তাদের নাম পরিচয় কিছুই পায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here