ঢাকার কেরানীগঞ্জে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে সম্পদের পাহাড় গড়েছেন সিরাজ

0
102

স্টাফ রিপোর্টার ঃ দীর্ঘ কয়েক বছর যাবৎ সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সারাদেশে নতুন গ্যাস সংযোগ বন্ধ থাকলেও কেরানীগঞ্জ এলাকায় যেন এর ব্যতিক্রম। অবাধে চলছে অবৈধ গ্যাস সংযোগের মহাউৎসব। সংশ্লিষ্ট অসাধু ব্যাক্তিদের ম্যানেজ করে একটি সিন্ডিকেট চক্র অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ দিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অঙ্কের অর্থ। আর সেই সিন্ডিকেট চক্রের অন্যতম একজন সিরাজ মিয়া। যিনি নিজেকে গ্যাস ঠিকাদার পরিচয়ে দিয়ে হাতিয়ে নিয়েছে কোটি কোটি টাকা। গড়েছেন নামে বেনামে অঢেল সম্পদের পাহাড়।
কেরানীগঞ্জ দারুস সালাম এলাকায় রয়েছে সিরাজের প্রায় ৫ কোটি টাকা মূল্যের ৬তলা একটি আলিশান ভবন। তার কিছুটা দূরেই নির্মাণাধিন আরও একটি ৫ তলা ভবন। কেরানীগঞ্জ শাক্তা এলাকায় রয়েছে তার ক্রয়কৃত জমি এবং বিভিন্ন এলাকায় নামে বেনামে রয়েছে ফ্লাট। এখানেই শেষ নয়, তার নিজ গ্রাম ভোলা জেলার দৌলতখান থানাধীন এলাকায়ও গড়েছেন আলিশান বাড়ি।
এক সময় সিরাজ গ্যাস ঠিকাদার সোরহাবের লেবার হিসেবে কাজ করতো। সোরহাবের মৃত্যুর পরেই সিরাজ পেয়েছেন আলাদিনের চেরাগ। লেবার থেকে হয়ে যান ঠিকাদার।
অনুসন্ধানে জানা যায়, কেরানীগঞ্জ বন্দডাক পাড়া হাজী নাসির উদ্দিনের গলিতে মান্নান, আজিম, হারুন কসাই, পারভিন, নূর হোসেন, সায়েম, নিজাম উদ্দিন, মোসাদ্দেক, পরাগ, খোকন, জামাল, এনামুল, আনোয়ার, মোটর সাইকেল সিরাজ, আবুল, হাজী লালমিয়া, নুরু টাওয়ার এবং গোলাম বাজারের কামাল, যুবলীগ নেতা আতাউল ও দারুস সালাম লালমিয়া নগর এলাকায় রিপিন মিয়ার বাড়ীসহ বিভিন্ন মহল্লায় বাসা বাড়িতে শত শত অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা।
দীর্ঘ কয়েক বছর যাবৎ কেরানীগঞ্জের ভিন্ন এলাকায় ঘরে ঘরে পৌঁছিয়ে দিয়েছে শত শত অবৈধ গ্যাস সংযোগ। গ্রাহকদের কাছ থেকে গ্যাস বিল দেয়ার কথা বলে সিরাজ, শামিম, মান্দাইলের জলিল এবং সেলিম প্রতি মাসে হাতিয়ে নিচ্ছে ২০ থেকে ২৫ লক্ষ টাকা।
এ বিষয়ে সিরাজের কাছে জানতে চাইলে তিনি অবৈধ গ্যাস সংযোগের বিষয়ে অস্বীকার করে এবং নিজেকে বড় মাপের ঠিকাদার হিসেবে পরিচয় দেন।
তিতাস গ্যাস কেরানীঞ্জের ব্যবস্থাপক প্রকৌ. বিধান চন্দ্র মৈত্র বক্তব্য দিতে অনিহা প্রকাশ করেন।