দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মুন জা-ইনের বিজয় দাবি

0
266

ম্যাগপাই নিউজ ডেক্স : দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট  নির্বাচনে উদারপন্থী প্রার্থী মুন জা-ইন বিজয়ী হয়েছেন বলে দাবি করেছেন। মঙ্গলবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শেষে প্রাথমিকভাবে প্রকাশিত বেসরকারি ফলাফলের ভিত্তিতে তিনি এ বিজয় দাবি করেন।

মুন জা- ইন রাজধানী সিউলে এক বক্তৃতায় তার সমর্থক ও জনগণের উদ্দেশে বলেন, ‘আমি দক্ষিণ কোরিয়ার সকল মানুষের প্রেসিডেন্ট। ‘

দিনব্যাপী ভোটগ্রহণ শেষে বেসরকারি ফলাফলে জানা গেছে, মুন জা- ইন ৪১ দশমিক ৪ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি হং জং পিয়ো পেয়েছেন ২৩ দশমিক ৩ শতাংশ ভোট।

অভিশংসিত প্রেসিডেন্ট পাক কুন-হের উত্তরসূরীর সন্ধানে মঙ্গলবার (৯ মে) ভোট দেন দেশটির নাগরিকরা। বড় রকমের আর্থিক কেলেঙ্কারির মুখে পাক কুন-হের অভিশংসনের পরে দেশটির ভবিষ্যতের জন্য এ নির্বাচনকে গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনা করা হচ্ছে। ভোটগ্রহণ শেষে দেশটির গণমাধ্যম মুন জা-ইনের এগিয়ে থাকার কথা জানায়।

উদারপন্থী মুন জা-ইন পাশের দেশ উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বিরোধ নিরসনে আলোচনা এগিয়ে নিতে চান। এজন্য দক্ষিণ কোরিয়ার বর্তমান নীতি বদলের পক্ষে তিনি। রাজনীতির পাশাপাশি পেশাগত জীবনে একজন মানবাধিকার বিষয়ক আইনজীবী। ২০১২ সালের নির্বাচনে তিনি পাক কুন-হের বিরুদ্ধে লড়াই করে পরাজিত হন।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে দেশটির প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেন ৬৫ বছর বয়সী পাক কুন-হে। এরপর থেকেই তার বিরুদ্ধে সংবিধান লঙ্ঘনের অভিযোগ ওঠে। হে’র বন্ধু চোই সুন-সিল প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সম্পর্কের সুবাদে অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠান থেকে অনুদানের নামে ৬৫ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার হাতিয়ে নেন বলে অভিযোগ ওঠে।

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গত বছরের ডিসেম্বরে পাক কুন হে’র অভিশংসনের পক্ষে ভোট দেন দেশটির আইন প্রণেতারা। দুর্নীতির কেলেঙ্কারির ঘটনায় গণ-আন্দোলনের মুখে তার বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়। ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। এখন তার বিরুদ্ধে ফৌজদারি বিচার চলছে। দোষী সাব্যস্ত হলে তাকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here