দরিদ্র দেশের বরাদ্যকৃত বেশিরভাগ টিকাই নিজেরা রেখে দিচ্ছে ভারত

0
101

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নভেল করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে গোটা পৃথিবীজুড়ে জোরকদমে চলছে টিকাদান কার্যক্রম। দরিদ্র দেশগুলোতে টিকা সরবরাহে বৈশ্বিক কর্মসূচির আওতায় ভারতে অ্যাস্ট্রাজেনেকার যে প্রায় দুই কোটি ৮০ লাখ ডোজ করোনার টিকা বানানো হয়েছে তার এক তৃতীয়াংশের বেশি ভারত নিজেই পেয়েছে।

কোভ্যাক্স কর্মসূচির আওতায় যে টিকা সরবরাহ করার কথা, তার বড় অংশ উৎপাদক দেশই রেখে দিচ্ছে- এ তথ্য জানাজানি হওয়ার পর তা ভারত ও কোভ্যাক্সের ওপর চাপ বাড়াতে পারে বলেও অনেকে মনে করছেন।

ইউনিসেফের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, ভারত এর মধ্যেই কোভ্যাক্সের কাছ থেকে এক কোটি ডোজ টিকা পেয়েছে। এই সংখ্যা যে কোনো দেশের তুলনায় অনেক বেশি।

ভারতের পর কোভ্যাক্সের কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি টিকা পেয়েছে নাইজেরিয়া, ৪০ লাখ ডোজ। অথচ কোভিড-১৯ এর টিকা পেতে এ কর্মসূচির দিকে তাকিয়ে থাকা অনেক দরিদ্র দেশই এখন পর্যন্ত কোভ্যাক্স থেকে হয় সামান্য পরিমাণ পেয়েছে, নাহলে কোনো ডোজই পায়নি।

প্রধানত দরিদ্র দেশের মানুষদের টিকা দেওয়ার লক্ষ্যে গঠিত উদ্যোগ কোভ্যাক্স ভারতের সেরাম ইনস্টিাটউট থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার কয়েক কোটি টিকা কেনার ক্রয়াদেশ দিয়েছিল।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভ্যাকসিন উৎপাদক দেশ ভারতে এখন পর্যন্ত এক কোটি ২০ লাখ মানুষের দেহে প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে। বিশ্বের মধ্যে এরচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে কেবল ব্রাজিল ও যুক্তরাষ্ট্রে।

দক্ষিণ এশিয়ার এ দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৬ কোটি ৪ লাখের বেশি মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে। ভারত বিভিন্ন দেশে ৪ কোটি ৪০ লাখ ডোজ রপ্তানিও করেছে। দেশের ভেতর টিকাদান কর্মসূচির গতি বাড়াতে ভারতের সরকারের ওপর জনগণের চাপও প্রবল।