দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড যশোরে

0
193

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে যশোর অঞ্চলে গত দুইদিন ধরে বৃষ্টিপাতে হচ্ছে। রোববার এ জেলায় দেশের সর্বোচ্চ ২৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিতে জনজীবনে দুর্ভোগ নেমে এসেছে। শীত ও বৃষ্টিতে জবুথবু হয়ে পড়েছে প্রাণিকূল। নাজুক অবস্থায় শ্রমজীবী মানুষ ও কৃষক। ক্ষেতের পাকা ধান নিয়ে বিপাকে কৃষক।
আবহাওয়া অফিস বলছে, ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ’র প্রভাবে রোববার সারা দিন বৃষ্টি হয়েছে। সোমবার গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিপাত বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভবনা বেশি রয়েছে। মঙ্গলবারও আবহাওয়া একই থাকবে। ৮ ডিসেম্বর থেকে আবহাওয়ার উন্নতি হতে পারে। রোববার যশোর জেলায় ২৭ মিলিমিটার যা দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এদিন, জেলায় সবোর্চ্চ তাপমাত্রা ছিলো ২২ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন ছিলো ২০ দশমিক ৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এছাড়া দেশে সব্বোচ্চ তাপমাত্রা এদিন রেকর্ড করা হয় টেকনাফে ৩২ ডিগ্রী সেলসিয়ার আর সর্বনিম্ন তেঁতুলিয়া ১৪ দশমিক ১ ডিগ্রী সেলসিয়াস। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিপাতে সঙ্গে শীতের তীব্রতাও বাড়বে বলে আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে।
এদিকে, দুদিন ধরে টানা গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির কারণে সব থেকে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষ। সকাল থেকে খেটে খাওয়া মানুষকে বেকায়দায় পড়তে হয়েছে।
ভ্যান চালক শরিফুল বলেন, শীতের সাথে পাল্লা দিয়ে যেন পানি হচ্ছে। ভ্যান চালাতে খুব কষ্ট হচ্ছে। রোজগার না হলে খাবো কি। তাই ভ্যান নিয়ে রাস্তা আছি।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর যশোরের উপ পরিচালক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস জানান, যশোর জেলার কৃষকরা তাদের আমন ধান ঘরে নেওয়া শেষ পর্যায়ে। এই বৃষ্টিতে আমন ধান ঘরে তুলতে বৃষ্টি কিছুটা বাগড়া দিয়েছে। যদি এই বৃষ্টি অব্যহত থাকে তাহলে ধানের কিছুটা ক্ষতি হবে। সেই সাথে শীতকালিন সবজি, মসূর ও সরিষার ক্ষতি হবে। এতে কৃষিকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবেন।