ধর্ষণের সত্যতা স্বীকার করেছেন নাঈম

0
205

নিজস্ব প্রতিবেদক : বনানীর আবাসিক হোটেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অন্যতম আসামি নাঈম আশরাফ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম এ কথা জানিয়েছেন।

এর আগে বনানীতে দুই তরুণীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের কথা স্বীকার করেন গ্রেফতার অপর দুই আসমি সাফাত ও সাকিফ।  তবে বিষয়টিকে তারা ধর্ষণ মানতে নারাজ। তাদের মতে সমঝোতার ভিত্তিতে এ সম্পর্ক হয়েছিল। এটা ধর্ষণ হয় কীভাবে?

বৃহস্পতিবার (১৮ মে) সকালে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে মনিরুল বলেন, প্রধান অভিযুক্তকে কেবল জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে নাঈমকে বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হবে। কোন পরিস্থিতিতে কীভাবে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে তা আরও জিজ্ঞাসাবাদে জানা যাবে।

ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মনিরুল বলেন, মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে অভিযান চালিয়ে নাঈম আশরাফ ওরফে এইচএম হালিমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাদীদের ভাষ্য অনুযায়ী সেদিন রাতে নাঈমের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি বিতর্কিত ছিল। গ্রেফতারের পর তাকে ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়। সেখানে ওমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন্সের তদন্ত কর্মকর্তারা তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করেন। জিজ্ঞাসাবাদে নাঈম ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

ঘটনাটি ধর্ষণ বলে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে মনিরুল ইসলাম বলেন, সেদিন রাতের প্রধান ভূমিকা পালনকারী নাঈমকে মাত্রই আমরা গ্রেফতার করেছি। তাকে রিমান্ডে নিয়ে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদের পরই সামগ্রিক বিষয়ে মন্তব্য করা যাবে।

এ ঘটনার বাদী দুই তরুণীকে আসামিদের সঙ্গে মুখোমুখি করা হবে কিনা? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা আসামিদের কাছ থেকে যেসব তথ্য পাচ্ছি, সেগুলো নিয়ে বাদীদের সঙ্গে কথা বলছি। তাছাড়া বাদীরা আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here