নাভারণে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের ছিনতাইকৃত সব টাকা উদ্ধার : গ্রেফতার ৩

0
99

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরের নাভারণে ডাচ বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের প্রায় ৮ লাখ টাকা ছিনতাইয়ে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশের অভিযানে বৃহস্পতিবার ভোরে বেনাপোল থানার ভবেরবেড় ও বড়আঁচড়া এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার ও ছিনতাইকৃত টাকা, অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন বেনাপোল থানার সাদিপুর গ্রামের আহসানের ছেলে মো. সুজন (২৫), একই গ্রামের তৈয়ব মোড়লের ছেলে আনোয়ার (২৫) ও ভবেরবেড় এলাকার নুরুর ছেলে মো. নোমান (১৯)।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নিজ দপ্তরে প্রেসবিফ্রিংয়ে যশোরের পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার বলেন, বুধবার বেলা ১১টার দিকে যশোরের নাভারণে মেসার্স শরীফ ট্রেডার্সের কর্মী শিমুল হোসেন টুটুল ডাচ বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের ১৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা বেনাপোলে ব্যাংকে জমা দিতে যান। এরমধ্যে মো. শরীফ ফোনে তার কর্মীকে ৬ লাখ টাকা ব্যাংকে জমা দিয়ে বাকি টাকা ফেরত আনতে বলেন। এজেন্ট মালিকের কথামত শিমুল হোসেন টুটুল ৭ লাখ ৮০ হাজার টাকা ফেরত নিয়ে আসছিলেন। পথিমধ্যে যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের মাঠপাড়া এলাকার জনৈক নূর হোসেনের বাড়ির সামনে থেকে ছিনতাইকারী টুটুলের কাছে থাকা ৭ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও ব্যবহৃত স্মার্ট ফোন ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় শার্শা থানায় মামলা হয়। বৃহস্পতিবার রাতে ডিবি পুলিশের একটি টিম অভিযান চালিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানার ভবেরবেড় ও বড়আঁচড়া এলাকা থেকে ছিনতাইয়ে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইকৃত ৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকা, ভিকটিমের মোবাইল ফোন, একটি ওয়ান শ্যুটারগান ও ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত একটি পালসার মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে। ছিনতাই ও অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় শার্শা ও বেনাপোল থানায় পৃথক মামলা হয়েছে।

প্রেসবিফ্রিংয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন পিবিআই যশোরের পুলিশ সুপার রেশমা শারমিন, যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সালাহউদ্দিন শিকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) তৌহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) গোলাম রব্বানী শেখ, ডিবি ওসি সোমেন দাস প্রমুখ।