নড়াইলের লোহাগড়ায় টিসিবির পণ্য বিক্রয়ে ক্রেতাদের ভিড়, পণ্য বিক্রয়ে অনিয়ম ডিলারের সাথে ক্রেতাদের বাকবিতন্ডা

0
569

নিজস্ব প্রতিবেদক : নড়াইলের লোহাগড়ায় নভেল করোনা ভাইরাসের প্রভাবে বিপাকে পড়া মানুষের মাঝে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ বা টিসিবি থেকে পণ্য বিক্রয় শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার মল্লিকপুর ইউনিয়ন পরিষদে পণ্য বিক্রয় শুরু করে টিসিবির ডিলার। করোনা ভাইরাস রোধে সামাজিক দূরত্বের নিয়ম ভঙ্গ করে দীর্ঘ তিন ঘন্টা অপেক্ষা করার পর ডিলারের সাথে ক্রেতাদের তুমুল বাকবিতন্ডা বাধার খবর পাওয়া গেছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, করোনার প্রভাবে ঘরবন্দি হয়ে বিপাকে পড়া মানুষেরা দীর্ঘ তিন ঘন্টা দাঁড়িয়ে টিসিবির পণ্য সংগ্রহ করার জন্য অপেক্ষা করার পর পণ্য না পেয়ে ও ডিলারের অনিয়ম ধরা পড়লে ক্রেতারা তার সাথে বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এ সময় ডিলারের পক্ষ থেকে টিসিবির চারটি নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয় করার কথা থাকলেও ক্রেতাদের তিনটি পণ্য নিতে হয়। তাছাড়া সয়াবিন তৈল ৫ লিটারের পরিবর্তে ৪লিটার, চিনি ২ কেজি ও ডাল ১ কেজি করে বিক্রয় করা হয়। ডাল সংকট থাকায় ৩২৮ জনের মধ্যে মাত্র ১০০ জনকে ১ কেজি করে ডাল দেয়া হয়। অনেকে পণ্য না পেয়ে ফেরত যেতে বাধ্য হয়েছে।
লোহাগড়ার টিসিবির ডিলার মেসার্স কুন্ডু ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী প্রবীর কুমার কুন্ডু টিসিবির পণ্য বিক্রয় করতে দেরি ও ক্রেতাদের সঙ্গে বাক বিতন্ডা হয়েছে এ কথা স্বীকার করে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সকালে আমার লাইন্সেসের পণ্য সমূহ লোহাগড়া বাজারের মো. মহাসীন মোল্যা নামে এক ডিলারের মাধ্যমে উপজেলার মল্লিকপুর ইউনিয়নে বিক্রয়ের জন্য পাঠিয়ে ছিলাম। কিন্তু তিনি ৩৫০ কেজি চিনি ও ৫০ কেজি ডাল তার গোডাউনে রেখে গিয়েছিল।’
লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুকুল কুমার মৈত্র বলেন, ‘বিষয়টি দুঃখ জনক পরবর্তীতে এ রকম হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’