নড়াইলে নবগঙ্গা নদীর ভাঙ্গনে ওয়াপদা ভেড়ী বাঁধ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বসতভিটা হুমকির মুখে

0
653

নড়াইল প্রতিনিধি
নড়াইলের কালিয়ায় নবগঙ্গা নদী ভাঙ্গনের তীব্রতা মারাত্মক আকারে বৃদ্ধি পেয়েছে। যে কোন মুহুর্তে কালিয়া পৌর সভার বড়কালিয়া-নাওরা ঝুকিপূর্ণ ওয়াপদা ভেড়ীবাঁধটি ভেঙ্গে যেতে পারে। ভেড়ী বাঁধটি ভেঙ্গে গেলে উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের প্রায় ২৫ হাজার পরিবার অধ্যুষিত ৫ হাজার ৭০০শ’ হেক্টর ফসলি জমি ও প্রায় ১ হাজার মাছের ঘের ক্ষতির সম্মুখীন হবে। এছাড়া খুলনা জেলার তেরখাদা, রূপসা ও দিঘলিয়া (আংশিক) উপজেলার কয়েক হাজার একর ফসলি জমি ও ২ হাজারের উর্ধ্বে মাছের ঘের তলিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে কয়েক হাজার কোটি টাকার ক্ষতির আশংকা রয়েছে। বড়কালিয়া ওয়াপদা ঝুকিপূর্ণ বেড়ীবাঁধটির দিকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের তেমন কোন নজর বা খেয়াল নেই।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সালামাবাদ ইউনিয়নের বাহিরডঙ্গা ও বিলব্যাউচ, পৌরসভার নাওরা, বৃহাচলার ও বড়কালিয়ার ৫০টি বাড়ী ও স্কুলসহ নদী গর্ভে বিলীন হওয়ার উপক্রম দেখা দিয়েছে। উপজেলার নবগঙ্গা নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন অব্যাহত থাকার কারণে ওইসব নদীর ভাঙ্গন প্রবল আকার ধারন করেছে বলে এলাকাবাসিরা ইউএনওর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
অভিযোগের বিবরণে জানা যায়, অবৈধ ড্রেজার মেশিন বসিয়ে নবগঙ্গা নদী থেকে অব্যাহত ভাবে অবৈধ বালু উত্তোলন করায় ওই নদীতে ভাঙ্গনের ব্যাপকতা বৃদ্ধি পেয়েছে। পৌরসভার বড়কালিয়া গ্রামের ভুক্তভোগীরা নাম প্রকাশ না করার শর্তে অভিযোগ করে বলেন, নবগঙ্গা নদীর কাঞ্চনপুর খেয়াঘাটসহ বিভিন্ন স্থান থেকে একশ্রেণির প্রভাবশালী মহল প্রশাসনের নাকের ডগায় গত কয়েক মাস যাবত অবৈধ বালু উত্তোলন অব্যাহত রেখেছে। এছাড়া চলমান নি¤œচাপের ফলে সৃষ্ট অবিরাম প্রবলবর্ষণে নবগঙ্গা নদীর পাড়সমূহের উল্লিখিত গ্রামসহ বিভিন্ন এলাকায় ভাঙ্গন অব্যাহত আছে। ইতিমধ্যে বড়কালিয়া ওয়াপদা বেড়ীবাধঁটির অর্ধেক নদী গর্ভে ভেঙ্গে পড়েছে। একই সাথে রাস্তার পাশে বড় কালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টিসহ ওই এলাকার অর্ধশতাধিক বাড়িঘর ভাঙ্গন কবলিত হয়ে পড়েছে।

কালিয়া পৌরসভার মেয়র ফকির মুশফিকুর রহমান লিটন জানান, ‘ভাঙ্গন রোধের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড বড়কালিয়া ও নাওরা এলাকায় বালুরবস্তা ফেলতে শুরু করেছে। অচিরেই সমস্যা সমাধান হবে।’

কালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছি। এছাড়া নদী ভাঙ্গনের বিষয়ে যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here