পরে রওয়ানা দিয়েও ভারতের চন্দ্রযানের আগে চাঁদে পৌঁছাবে রুশ লুনা

0
93

অনলাইন ডেস্ক : চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে আগে পা রাখবে কে? আপাতত যা মনে হচ্ছে তাতে ভারতের নভোযান ইসরোর চন্দ্রযান ৩-কে ‘হারিয়ে’ দেবে রাশিয়ার লুনা-২৫। এই আবহে রুশ মহাকাশযানটি নিয়ে একটি বড় আপডেট দিয়েছে দেশটির রুশ মহাকাশ গবেষণা সংস্থা রসকসমস।

রসকসমস জানিয়েছে, আগামী ২১ অগাস্ট রাশিয়ার লুনা-২৫ ল্যান্ডারটি চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণ করবে। এছাড়া ভারতের ইসরো জানিয়েছে, চন্দ্রযান-৩ অবতরণ করবে ২৩ অগাস্ট। সেই হিসাবে চন্দ্রযান-৩ এর দুদিন আগে চাঁদে অবতরণ করবে লুনা-২৫।

ভারতের তুলনায় অনেক দেরিতে চাঁদের অভিযান শুরু করেছে রাশিয়া। কিন্তু ভারতের চন্দ্রযান-৩ এর আগেই চন্দ্রপৃষ্ঠে নামতে চলেছে রুশ মহাকাশযান লুনা ২৫।
এ অবস্থায় প্রশ্ন উঠছে, আগে যাত্রা শুরু করেও কেন রাশিয়ার পরে চন্দ্রপৃষ্ঠে পৌঁছাবে ভার‍ত?

জানা যায়, লুনা ২৫-এর ওজন অনেক কম। যন্ত্রপাতির ওজন এবং ওজন বহনের ক্ষমতা অনেক কম রয়েছে রুশ চন্দ্রযানের। মাত্র ১৭৫০ কেজি ওজন বহন করতে পারে লুনা ২৫। সেখানে চন্দ্রযান ৩ সবমিলিয়ে ৩৮০০ কেজি ওজন বহন করতে পারে।

ওজনের এই তারতম্যের কারণেই অপেক্ষাকৃত হালকা লুনা ২৫ অনেক দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে। এছাড়া ভারতের চন্দ্রযানের তুলনায় লুনা ২৫-এর জ্বালানি মজুত করার ক্ষমতা অনেক কম। সেই জন্যই চাঁদের কক্ষপথে খুব বেশি না ঘুরে সোজাসুজি চন্দ্রপৃষ্ঠে নামতে চলেছে রুশ চন্দ্রযান। কিন্তু ভারতের জ্বালানি অনেকটা বেশি পরিমাণে মজুত থাকবে। মূলত চাঁদের মাধ্যাকর্ষণ শক্তিকে কাজে লাগিয়েই খানিকটা ঘুরপথে চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করবে ভারতের চন্দ্রযান।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, খরচ কমানোর কারণেই বেশি জ্বালানি থাকা সত্ত্বেও মাধ্যাকর্ষণকে কাজে লাগাতে চাইছে ভার‍ত। তার প্রভাবেই খানিকটা ধীর গতিতে চলছে চন্দ্রযান ৩।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেই এই মহাকাশযানের উৎক্ষেপণ করেছিল রাশিয়া। প্রায় ৪৭ বছর পর ফের চাঁদের উদ্দেশে মহাকাশযান পাঠিয়েছে রাশিয়া। এই মহাকাশযানের লক্ষ্য চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে পা রাখা। আগামী ২১ থেকে ২৩ আগস্টের মধ্যেই রাশিয়ার এই মহাকাশযানটি চাঁদে অবতরণ করার পরিকল্পনা করছে। এই আবহে ভারতের চন্দ্রযান ৩-এর আগেই এটি চাঁদে পা রাখতে সক্ষম হবে। এবং চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে পা রাখা প্রথম দেশ হবে রাশিয়া।

রাশিয়ার মহাকাশ বিজ্ঞান সংস্থা রসকসমসের পরিকল্পনা, মোট ৫ দিন চাঁদকে প্রদক্ষিণ করবে লুনা-২৫। এরপর আগামী ২১ আগস্ট এটি চাঁদে অবতরণের চেষ্টা করবে।

রুশ মহাকাশ সংস্থার প্রধান ইউরি বরিসভ এমনটাই জানিয়েছেন। তবে জানা গেছে, পরিস্থিতির হেরফের হলে ২৩ আগস্ট পর্যন্ত যেকোনও একদিন অবতরণের চেষ্টা করা হবে।

সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস।