পাইকগাছায় জিরো পয়েন্টে যাত্রী ছাউনী ও গণশৌচাগার না থাকায় চরম ভোগান্তিতে যাত্রী সাধারণ

0
548

বাবুল আক্তার, পাইকগাছা : পাইকগাছায় জিরো পয়েন্টে যাত্রী ছাউনী না থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়তে পড়ছে যাত্রী সাধারণ। অপরদিকে সরকারিভাবে একটি পাবলিক টয়লেট স্থাপন করা হলেও অধিংশ সময় থাকে বন্ধ। পাবলিক টয়লেট ও যাত্রী ছাউনি না থাকায় প্রতিদিন চরম বিপাকে পড়ছেন মহিলাসহ যাত্রীসাধারন।
জানা গেছে, পাইকগাছা উপজেলার শিববাটী ব্রীজ চালু হওয়ার পর থেকে পৌর বাসস্ট্যান্ডের পরিবর্তে জিরো পয়েন্ট থেকে যাত্রী সাধারণ ওঠা-নামা করছে। পাইকগাছা-কয়রা (শিববাটী ব্রীজের সংযোগ সড়ক) ও পাইকগাছা-খুলনা সড়কটির মিলিত স্থানটি পৌর জিরো পয়েন্টে নামে পরিচয় লাভ করে। পাইকগাছা, কয়রা ও পার্শ্ববর্তী আশাশুনিসহ বিভিন্ন এলাকার হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন ঢাকা, খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে যাতায়াত করছে। যাতায়াতের সময় প্রত্যেক যাত্রীকে জিরো পয়েন্টে যাত্রা বিরতি করে যানবাহন পরিবর্তন করতে হয়। এ সময় দুরপাল্লার যাত্রীদের এক দিকে যেমন বিশ্রাম নেওয়ার প্রয়োজন হয়, অপরদিকে প্রয়োজন হয় বাথরুমের। বর্তমানে জিরো পয়েন্ট এলাকাটি জনগুরুত্বপূর্ণ ব্যস্ততম এলাকায় পরিণত হওয়ায় এখানে পুলিশ মোতায়েন থাকে। দীর্ঘ সময় একই স্থানে অবস্থান করার কারণে অনেক সময় তাদেরও বাথরুমের প্রয়োজন হয়। অথচ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ গুরুত্বপুর্ণ এ স্থানে নির্মাণ করেননি কোন যাত্রী ছাউনী। যদিও একটি পাবলিক টয়লেট অতি সম্প্রতি নির্মান করা হয়েছে। তবুও সেটি অধিংশ সময় থাকে বন্ধ। ফলে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে যাত্রী সাধারণকে। এ ব্যাপারে খুলনা বিভাগীয় বাস-মিনিবাস সমিতির লাইন সেক্রেটারী শেখ জাহিদুল ইসলাম, ও শ্রমিক নেতা মিথুন মধু জানান, জিরো পয়েন্টর আশ-পাশ এলাকায় সড়ক ও জনপদ বিভাগের সরকারী অনেক জায়গা রয়েছে। প্রতিনিয়ত রাস্তার দু’ধার দখল হয়ে যাচ্ছে। ফলে রাস্তাটি হচ্ছে সংকীর্ণ। ঘটছে দুর্ঘটনা। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, জিরো পয়েন্টে গণশৌচগার কিংবা পাবলিক টয়লেট ব্যবস্থা না থাকার কারনে অনেক সময় বাড়ীতে লোকজন ঢুকে পড়ে। যে কারনে তাদেরকেও অনেক সময় নানান অসুবিধায় পড়তে হয়। যাত্রী সাধারনসহ মটর শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ অনতিবিলম্বে জিরো পয়েন্টে যাত্রী ছাউনি ও নির্মানকৃত পাবলিক টয়লেটটি ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করার জন্য সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here