পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা ‘ভয়’ পান!

0
228

ক্রীড়া ডেস্ক: রয়টার্সদক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামার আগেও ভারতের বিপক্ষে শোচনীয় হার তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে পাকিস্তানকে। কোচ মিতি আর্থারের মতে, ভারতের বিপক্ষে ২৪ হাজার দর্শকের সামনে এত বড় ম্যাচ খেলতে নেমে আতঙ্ক পেয়ে বসেছিল পাকিস্তান দলকে। তিনি এই আতঙ্ককে বলেছেন ‘মঞ্চ-ভীতি’।
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচটিও পাকিস্তান খেলবে বার্মিংহামের এজবাস্টনেই। এটিও বড় ম্যাচ। মঞ্চ-ভীতি যে এ ম্যাচেও হবে না, সেটি কিন্তু জোর দিয়ে বলতে পারছেন না কোচ। তবে তিনি চান তাঁর দল ‘স্বাভাবিক খেলা’টাই খেলুক, ‘আমি খেলোয়াড়দের ভীতি নিয়ে ভাবছি। আমি চাই তারা মাঠে নেমে ম্যাচটা ভালোভাবেই খেলুক। আমার দুশ্চিন্তা হচ্ছে, খেলোয়াড়েরা মৌলিক ভুলগুলো খুব বেশি করে করছে।’
‘মৌলিক ভুল’ ভারতের বিপক্ষেই বেশ কয়েকটিই করতে দেখা গেছে পাকিস্তান দলকে। এর মধ্যে আছে সহজ ক্যাচ ফেলার মতো বাজে ব্যাপার। আর্থারের চিন্তা বাড়াচ্ছে এগুলোই, ‘আমরা সহজ ক্যাচ ছেড়ে দিচ্ছি। ব্যাটিংয়ের সময় রানিং বিটুইন দ্য উইকেট ঠিক হচ্ছে না। বোলাররা বুঝতে পারছে না কখন, কীভাবে বলের বৈচিত্র্য ব্যবহার করতে হবে।’
অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদও ‘ভীতি’র ব্যাপারটি অস্বীকার করেননি, ‘ভারতের সঙ্গে ম্যাচ সব সময়ই খুব বড় ম্যাচ। আমাদের দলের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ই প্রথমবারের মতো এত বড় মঞ্চে, ভারতের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল। খুব সম্ভবত তারা চাপে পড়ে গিয়েছিল।’
ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে গোড়ালিতে আঘাত পেয়ে শেষ হয়ে গেছে পাকিস্তানের বাঁ হাতি ফাস্ট বোলার ওয়াহাব রিয়াজের চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। চোটে না পড়লেও হয়তো দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে রিয়াজকে নামানোর সাহস পেতেন না কোচ আর্থার। কোহলি, যুবরাজদের বিপক্ষে ৮.৪ ওভারে ৮৭ রান দিয়ে রিয়াজ কোচের সর্বশেষ আস্থাটুকুও হারিয়েছেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচেও ৭৩ রান দিয়েছিলেন তিনি। রিয়াজের বদলে দলে নেওয়া হয়েছে রুম্মান রইসকে। তবে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আজকের ম্যাচে জুনায়েদ খান যে খেলছেন, ব্যাপারটি মোটামুটি নিশ্চিতই।
অধিনায়ক সরফরাজই নিশ্চিত করেছেন জুনায়েদের খেলার বিষয়টি, ‘ওয়াহাব যেহেতু খেলতে পারছে না, তাই জুনায়েদ তো খেলবেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here