পানিরও ‘স্বাদ’ আছে, দাবি বিজ্ঞানীদের

0
265

নিজস্ব প্রতিবেদক: পানির স্বাদ কেমন? এমন প্রশ্নের উত্তর দিতে গেলে সামান্যও ভাবতে হয় না আমাদের। একটা বাচ্চাও বলে দেবে পানির কোন স্বাদ নেই। কিন্তু সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা দাবি করছেন, পানির নির্দিষ্ট স্বাদ আছে। বহু প্রজাতির পোকামাকড় সে স্বাদ পেতে সক্ষম বলেও জানিয়েছেন তাঁরা।

ক্যালটেক নামের একটি সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটের গবেষক দল এ ব্যাপারে বিস্তৃত গবেষণা করে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত এসেছেন। দলের মুখপাত্র উকি ওকা জানিয়েছেন, পানির এই স্বাদকে ‘ষষ্ঠ’ স্বাদ বলে ধরা যেতে পারে। সাধারণ ভাবে মানুষের জিভ পাঁচ রকমের স্বাদ অনুভব করতে পারে।

মিষ্টি, টক, নোনতা, তেতো ছাড়াও আর একটা স্বাদ আছে, যাকে বিজ্ঞানীরা ‘উমামি’ বলে নামকরণ করেছেন। এটি একটি বিশেষ স্বাদ, যা বাকি চারটে স্বাদ থেকে আলাদা। এবার পানির স্বাদকে তাঁরা ষষ্ঠ স্থানে রাখলেন।

উকি জানিয়েছেন, বেশ কিছু পোকামাকড়ের প্রজাতি তাঁরা পেয়েছেন, যারা পানির নির্দিষ্ট স্বাদ পায়। তা থেকেই তাঁরা ধারণা করেন, স্তন্যপায়ী প্রাণীদের জিভেও নিশ্চয়ই সেই স্বাদগ্রহণের ক্ষমতা আছে। এরপর নানা ভাবে পরীক্ষা চালিয়ে তাঁরা সিদ্ধান্তে আসেন মানুষের জিভও পানির নির্দিষ্ট স্বাদকে আলাদা করে চিনে নিতে পারে।

সাধারণ ভাবে, জিভ যখনই কিছুর সংস্পর্শে আসে, তখন সেই স্পর্শের অনুভূতি স্নায়ুর মাধ্যমে মস্তিষ্কে পৌঁছোয়। এ ভাবে প্রত্যেকটা বস্তুর স্বাদকে আলাদা করে চিহ্নিত করে পারে মানুষের জিভ। পরীক্ষা করে দেখা যাচ্ছে জলের ক্ষেত্রও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। বিজ্ঞানীরা লক্ষ করে দেখেন, টক স্বাদের অনুভূতিকে ‘ব্লক’ করে রাখলে পানির অনুভূতিকে আলাদা করে চিনতে পারছে না জিভ। এর থেকেই তাঁরা সিদ্ধান্তে আসেন, পানির আলাদা স্বাদ আছে। জিভ তাকে আলাদা করে চিনতেও পারে। তাকে মোটেই স্বাদহীন বলা যাবে না। সূত্র: এবেলা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here