পিকনিকের জন্য ছাগল চুরি, গণধোলাই খেলেন যুবলীগ নেতা

0
31

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ছাগল চুরি করে পালানোর সময় ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের এক যুবলীগ নেতাসহ দুইজনকে গণপিটুনি দিয়েছে জনতা।

গতকাল রবিবার দুপুরে পার্শ্ববর্তী রানীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

যুবলীগ নেতাসহ দুইজনকে গণপিটুনি দেওয়ার একটি ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। যুবলীগ নেতার নাম হাবীবুল্লাহ হাবীব। তিনি নিজেকে পীরগঞ্জ পৌর আওয়ামী যুবলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসছিলেন। হাবীব পৌর শহরের গুয়াগাঁও মহল্লার জবাইদুরের ছেলে বলে জানা গেছে।
অপর জনের নাম মিরাজুল ইসলাম। তিনি পীরগঞ্জ উপজেলার তাজপুর গ্রামের মোহাম্মদ কোম্পানীর ছেলে। তারা উভয়ে সদর উপজেলার মহেশপুর গ্রামের একটি আম বাগান থেকে ছাগল চুরি করে মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতার হাতে ধরা পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শী সলেমান আলী বলেন, নেকমরদ বাজারে তাদেরকে গণপিটুনি দেওয়ার সময় আমি কাছে গিয়ে তাদের জিজ্ঞেস করা হলে তারা বলেন-পিকনিক খাওয়ার জন্য ছাগল চুরি করেছেন। আমি অবাক হয়েছি। আবার নিজেকে আওয়ামী লীগের নেতা দাবি করছেন।

ছাগল মালিকের কন্যা সুমাইয়া জানান, মহেশপুরের একটি আম বাগান থেকে তাদের একটি খাশি ছাগল মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল ওই দুই যুবক। এ সময় প্রতিবেশী এক ভাইসহ তিনি মোটরসাইকেলে করে পেছন থেকে তাদের ধাওয়া করেন এবং নেকমরদ বাজার এলাকায় জনতার সহায়তায় তাদের ধরে ফেলেন। এ সময় জনতা তাদের গণপিটুনি দেয়।

এ বিষয়ে হাবিবুল্লাহ হাবীবের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ পৌর আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল বাবু বলেন, হাবীব ধর্মবিষয়ক সম্পাদক নয়। সাধারণ সদস্য। তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।