প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে যশোর শহরে বিক্ষোভ মিছিল

0
82

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে আজ শনিবার (৪ জুন) বিকেলে যশোর শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। শহরের গাড়িখানাস্থ জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় প্রাঙ্গন থেকে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপির নেতৃত্বে এই বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি গাড়িখানা থেকে বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আবার দলীয় চত্বরে এসে শেষ হয়।

এর আগে জেলা আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ মিছিল উপলক্ষে সহযোগী সংগঠন মহিলালীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ ছোট ছোট বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে জড়ো হন। এসময় বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার নামে শ্লোগানে শ্লোগানে মুখর হয়ে উঠে দলীয় কার্যালয় প্রাঙ্গন। নেতাকর্মীরা বিএনপি নেতাকর্মীদের কটুক্তি ও প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেওয়ায় তীব্র নিন্দা জানান।
বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা, মেহেদী হাসান মিন্টু, হুমায়ুন কবীর কবু, প্রচার সম্পাদক মুন্সী মহিউদ্দীন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুখেন মজুমদার, আইন বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল কাদির, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক হারুন অর রশীদ, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউর রহমান হ্যাপী, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক খলিলুর রহমান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহিত কুমার নাথ, সাধারণ সম্পাদক শাহারুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. আসাদুজ্জামান আসাদ, সাধারণ সম্পাদক এসএম মাহমুদ হাসান বিপু, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মশিয়ার রহমান সাগর, এহাসানুল রহমান লিটু, আনোয়ার হোসেন মুস্তাক, সামির ইসলাম পিয়াস, সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ বিপুল, পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলাউদ্দিন, আজিজুল হক, ফয়জুল কবীর কচি, জাহাঙ্গীর আলম বাবলু, রবিউল ইসলাম, বাবলু কুমার নাথ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী শহিদুল হক শাহীন, এস এম ইউছুফ শাহিদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মাহবুব সরকার লাল্টু, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সেলিম কবির, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আরিফুজ্জামান বাদল, দপ্তর সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক উজ্জল হোসেন, প্রচার সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাবু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সবুজ, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমান, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক তৌহিদুজ্জামান ওয়াসেল, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ফারাজী আশিকুল ইসলাম বাঁধন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আলী হোসেন নয়ন, দপ্তর সম্পাদক শাহিনুর রহমান শাহিন, সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শেখ আলমগীর হোসেন, কোষাধ্যক্ষ হাজী হাসান, জেলা শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাইফুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাবলু, সহ সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন, শাহজাহান হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ লিটন, নিজাম উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কুটি, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ লিটন, সহ শ্রমিক কল্যাণ ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক লিটন হোসেন, জেলা যুব শ্রমিক লীগের সভাপতি কে এম কামরুজ্জামান শামীম সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ, চাঁচড়া ইউনিয়ন পরিষদের শামীম রেজা, বসুন্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেযারম্যান রিয়াজুল ইসলাম খান, নওয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর তুহিন, সাবেক চুড়ামনকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মুন্না, পৌর কাউন্সিলর আলমগীর কবির সুমন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও যুবলীগনেতা শফিকুল ইসলাম জুয়েল, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তপন কুমার ঘোষ, পৌর কাউন্সিলর নাছিমা আক্তার জলি, মহিলা আওয়ামী লীগনেত্রী রেহেনা পারভীন, সাবেক জেলা ছাত্রলীগের পাঠ্যচক্র বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান রনি, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন কবির পিয়াস, সহ সভাপতি ইয়াসিন আরাফাত তরুণ, রাজু রানা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, আশিকুর রহমান হৃদয়, মাসুদ হাসান কৌশিকসহ পৌর ও সদর উপজেলা ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ। সমাবেশে বক্তব্য শেষে নেতৃবৃন্দ যশোর শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন।

মিছিলটি দড়াটানা থেকে শুরু করে গাড়িখানা, থানার মোড়, ঈদগা মোড় প্রদক্ষিণ শেষে দড়াটানায় গিয়ে শেষ হয়।