ফরহাদ মজহার বারডেমে ভর্তি

0
365

নিজস্ব প্রতিবেদক: আদালতের কাছে নিজের জিম্মায় মুক্তি পাওয়ার পর রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আলোচিত-সমালোচিত কবি ও প্রাবন্ধিক ফরহাদ মজহার। সোমবার ভোরে কথিত অপহরণের পর রাতে তাকে যশোরের নোয়াপাড়া থেকে উদ্ধার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। মঙ্গলবার আদালতে তোলা হলে তিনি নিজ জিম্মায় মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পান।

ফরহাদ মজহারের স্ত্রীর বড়বোন ফেরদৌসি আখতার লিলি জানান, আদালত থেকে সন্ধ্যায় বাসায় ফেরার পর তিনি অসুস্থ বোধ করছিলেন। পরে তাকে বারডেমেরে ১১০৬ নম্বর কেবিনে ভর্তি করা হয়।

এর আগে মঙ্গলবার বিকাল পৌনে ছয়টার দিকে ঢাকা মহানগর হাকিম আহসান হাবিবের আদালত তাকে নিজ জিম্মায় ১০ হাজার টাকা মুচলেকা দিয়ে মুক্তি দেন।

এর আগে বিকাল তিনটার দিকে ফরহাদ মজহার নিজ জিম্মায় মুক্তির আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক তার আবেদন মঞ্জুর করেন।

সোমবার ভোরে রাজধানীর শ্যামলী এলাকায় বাসা থেকে বের হয়ে অপহরণের অভিযোগ এনে আদাবর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন ফরহাদ মজহারের স্ত্রী মানবাধিকার কর্মী ফরিদা আখতার। এর আগেই এই অভিযোগ পেয়ে তাকে উদ্ধারে তৎপরতা শুরু করে আইনশৃঙ্খল বাহিনী।

ফরহাদ মজহারের মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে খুলনায় তার অবস্থান শনাক্ত করে পুলিশ। সেখানে তার দুটি সম্ভাব্য অবস্থানে অভিযান চালিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে খুলনার পরিচিত একটি রেস্টুরেন্টে তিনি খাবার খেয়েছিলেন বলে প্রমাণ পাওয়া যায়।

এরপর খুলনা থেকে ঢাকার পথে একটি বাসে মিস্টার গফুর নামে টিকিট কাটেন ফরহাদ মজহার। যশোরের অভয়নগর এলাকায় বাসে তল্লাশি চালিয়ে রাতেই তাকে উদ্ধার করা হয়। পরে সকালে ঢাকায় নিয়ে আসা হয় তাকে।

আদাবর থানা থেকে দুপুরের দিকে মিন্টো রোডের গোয়েন্দা কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয় ফরহাদ মজহারকে। সেখানে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি নিতে আদালতে পাঠানোর কথা জানায় গোয়েন্দা পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here