ফেনিতে পরকীয়ার পর মৌখিক তালাক দেওয়ায় স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা

0
40

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনীতে দুবাই প্রবাসী সোহেলের পরকীয়া সম্পর্কসহ মৌখিক তালাক দেওয়ায় বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বলে প্রাথমিক ভাবে র‌্যাবকে জানিয়েছেন নিহতের স্ত্রী রোকেয়া আক্তার শিউলি। গতকাল শনিবার বিকেলে রোকেয়া আক্তার শিউলিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের খাজুরিয়া এলাকার চাচার বাড়ি থেকে আটক করা হয়। রবিবার সকালে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই তথ্য জানান ফেনী র‌্যাব-৭ এর কোম্পানী অধিনায়ক আব্দুল্লাহ আল জাবের ইমরান।

তিনি জানান, দুবাই প্রবাসী সোহেলের সাথে এক নারীর দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়া সম্পর্ক চলছিলো। এ নিয়ে স্ত্রী রোকেয়া আক্তার শিউলির সাথে দাম্পত্য কলহ বেড়ে যায়। গত ২০ আগষ্ট বৃহস্পতিবার রাতে ফের তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে প্রবাসী সোহেল তার স্ত্রীকে মৌখিকভাবে তালাক প্রদান করে। এতে স্ত্রী শিউলি চরম ক্ষিপ্ত হয়। একপর্যায় স্বামী সোহেল খাটের উপর বসে থাকা অবস্থায় পেছন দিক থেকে বটি দিয়ে কুপিয়ে এবং জবাই করে নৃশংসভাবে তাকে হত্যা করে। শিউলির ভাষ্যমতে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত বটি ধুয়ে পাশের ডোবায় ফেলে দেয়। পরে স্ত্রী শিউলি তার বাবা মারা গেছেন এমন কথা বাড়ির দারোয়ানকে বলে দু-সন্তান নিয়ে পালিয়ে প্রথমে চট্টগ্রাম ও ফটিকছড়ি যায়। পরে কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রামে তার চাচার বাড়িতে অবস্থান নেয়। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে সেখান থেকে আটক করা হয়। এসময় হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত বটি সদর উদ্দিনসড়কের চৌধূরী সুলতানা বিল্ডিং এর পাশের ডোবা থেকে উদ্ধার করা হয়। এছাড়া দুটি মোবাইল, দেশী-বিদেশী মুদ্রা ও স্বর্ণ অলংকার জব্দ করা হয় । আটকের সময় তার সাথে দুই সন্তান ছিলো।

এব্যাপরে নিহতের মা মিরালা বেগম বাদী হয়ে নিহতের স্ত্রী শিউলির বিরুদ্ধে শুক্রবার সন্ধ্যায় ফেনী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পরবর্তী ব্যবস্থা নিতে শিউলিকে ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।