ফ্রান্স থেকে বাংলাদেশে আনা হয় ৮৫ কোটি টাকার সাপের বিষ

0
144

অনলাইন ডেস্ক : র‍্যাব-১২ উপ-অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ মশিউর রহমান জানান, ফ্রান্স থেকে সংগৃহীত সাপের বিষ চোরাচালানের মাধ্যমে বাংলাদেশে আনা হয়েছিল। অবৈধভাবে এসব বিষ বহন করছিল আন্তর্জাতিক চোরাচালান চক্রের সদস্যরা। তবে আটকরা মূলত বাহক। উদ্ধার হওয়া এসব বিষের আন্তর্জাতিক বাজারমূল্য ১০ মিলিয়ন ডলার।

রাজধানীর রামপুরা থানাধীন চৌধুরীপাড়ার লোহার গেট এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৮৫ কোটি টাকা মূল্যের সাপের বিষ উদ্ধার করা হয়। এ সময় বাহক শফিকুল ইসলাম, জহিরুল হক, মজিবুর রহমান, দুলাল ও মোকলেসুর রহমান নামে পাঁচজনকে আটক করে র‌্যাব।শুক্রবার বিকেলে রামপুরা থানাধীন চৌধুরীপাড়া লোহার গেট এলাকার তাৎক্ষণিক এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানায় র‍্যাব।

মোহাম্মদ মশিউর রহমান বলেন, উদ্ধার করা বিষের সঙ্গে থাকা ম্যানুয়াল থেকে জানা যায়, ফ্রান্স থেকে এসব বিষ সংগ্রহ করা হয়। চোরাচালানের মাধ্যমে বাংলাদেশে আসে। এখানে লিকুইড ও ক্রিস্টাল হিসেবে বিষগুলো পাওয়া গেছে। এই চক্রের সদস্যরা মূলত বাহক হিসেবে কাজ করে আসছিল। ফ্রান্স থেকে আসা এসব সাপের বিষ বাংলাদেশ হয়ে কোথায় যাচ্ছিল তা খোঁজ নিতে তদন্ত চলছে।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব-১২ এর একটি দল জানতে পারে ঢাকার রামপুরা থানার এই এলাকায় একটি চক্রের সদস্যরা বিপুল পরিমাণ সাপের বিষ হাতবদল করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে আকস্মিক অভিযান চালানো হয়। এসময় চক্রের পাঁচ সদস্যকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ১২ পাউন্ড সাপের বিষ, ৬টি টেস্টিং কিড, সিডি ও একটি ম্যানুয়াল।

তিনি বলেন, আমরা জানতে পেরেছি এই বিষের বিভিন্ন ধরনের অবৈধ ব্যবহার রয়েছে। পাশাপাশি মাদক ও ওষুধ তৈরির কাজে ব্যবহৃত হয়।

এগুলো সাপের আসল বিষ কিনা বা কোনো পরীক্ষা করা হয়েছে কিনা? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা যে সব প্রমাণ পেয়েছি তাতে সাপের বিষ ধরা হচ্ছে। তবে আমরা সন্দেহজনক বিষ হিসেবে উল্লেখ করছি।