বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এদেশ কখনো স্বাধীন হতো না: প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য

0
45

উত্তম চক্রবর্তী,মণিরামপুর অফিস : মার্চ মাস বাঙ্গালিজাতির জন্য একটি গর্ব ও গৌরবের মাস। এই মাসে ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ মহান স্বাধীনতার স্থপতি সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণে উদ্বুদ্ধ হয়ে নিরস্ত্র বাঙ্গালিজাতি পাক-হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো। বাংলাদেশকে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠালাভ করতে সক্ষম হয়েছিলো। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এদেশ কখনো স্বাধীন হতো না। বঙ্গবন্ধু দীর্ঘ ২৪ বছরের পাকিস্তান স্বৈরশাসকের বিরুদ্ধে এদেশের নিরীহ বাঙ্গালিকে সংগঠিত করে আন্দোলন-সংগ্রাম গড়ে তুলেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সাহসিক ভূমিকা ও দুরদর্শী ৭মার্চের ভাষণে আমাদেরকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাসনের চেতনাকে ধারণ ও লালন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বির্নিমানে তাঁর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহতভাবে আজ এগিয়ে যাচ্ছে। সেই উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে স্বাধীনতার স্বপক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। পাশাপাশি দেশের বিরুদ্ধে সকল ধরনের ষড়যন্ত্র মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। মণিরামপুর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ ২০২২ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি এসব কথা বলেন। এর আগে প্রতিমন্ত্রী সকাল ৮টায় মণিরামপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পন করে জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ ছাড়া মণিরামপুর উপজেলা প্রশাসন,উপজেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ,উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন, মণিরামপুর পৌরসভা, মণিরামপুর সরকারি কলেজ,মণিরামপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন দপ্তরের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। পরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ জাকির হাসানের সভাপতিত্বে আয়োজিত আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি। বিশেষ অতিথি ও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এবং উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র অধ্যক্ষ কাজী মাহমুদুল হাসান,উপজেলা চেয়ারম্যান নাজমা খানম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দীন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান উত্তম চক্রবর্ত্তী বাচ্চু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী জলি আকতার, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাড. বশির আহম্মেদ খান প্রমুখ।