বাঁকড়ার ক্ষ্যাপা বাউল কানাই শাহ’র ২৭ তম তিরোধান দিবস আজ

0
605

এম আর মাসুদ : “ মরার কান্দা সকলে কান্দে/ জ্যান্তের কান্দা কেউ কান্দে না” এমন শ’শ’ গানের গীতিকার, সুরকার ও শিল্পী এবং মরমী কবি, কিংবদন্তি ক্ষ্যাপা বাউল কানাই শাহের ২৭ তম তিরোধান দিবস আজ। দিবসটি উপলক্ষে মরমী এই সাধকের নিজ বাড়ি যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়ায় কানাই শাহ স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে দুই দিন ব্যাপি সাধুসংঘ, আলোচনা সভা ও বাউল গানের আয়োজন করা হয়েছে।
আজ শনিবার সন্ধ্যা ৭ টায় কবির সমাধীস্থল বাঁকড়া গ্রামে দুইদিন ব্যাপি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে শুভ উদ্বোধন করবেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুল ইসলাম। প্রধান আলোচক থাকবেন, বিশিষ্ট কলামিষ্ট ও গবেষণা ধর্মীয় লেখক সহকারী অধ্যাপক সফিয়ার রহমান। এবং শেষ দিন রবিবার প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন, যশোর-২ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. মনিরুল ইসলাম মনির। প্রধান আলোচক থাকবেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রশিদুর রহমান। আরো আলোচনায় থাকবেন, ঢাকা কেন্দ্রীয় অগ্নিবীণার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, কবি ও গীতিকার এইচএম সিরাজ, কবি, গীতিকার ও লিরিক সম্পাদক কাসেদুজ্জামান সেলিম, যশোর ক্ষুদ্র ও কুঠির শিল্প সমিতির (নাসিব) সভাপতি সাকির আলী সহ সামাজিক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।
ক্ষ্যাপা বাউল কানাই শাহ ১৩০৩ বঙ্গাব্দ ৩ ভাদ্র যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার কপোতাক্ষ তীরবর্তী বাঁকড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মান্দার গাজী ও মাতা  খ্যান্ত বিবি। তিনি ১৩৯৮ বঙ্গাব্দের ১৩ কার্তিক না ফেরার দেশে চলে যান। তিনি যতবার কুষ্টিয়ায় লালন মেলায় গেছেন, ততবারই নিজের পদসহ তার কন্ঠে “গেঁড়ে গাঙ্গে রে ক্ষ্যাপা….হাপুর হুপুর ডুব পাড়িলে, এবার মজা যাবে বোঝা, কার্তিকের উলানের কালে” গানটি গেয়ে সুনাম অর্জন করতেন। ১৯৮৩ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে গিয়েছিলেন। সেখানে গান গেয়ে ক্ষ্যাপা বাউল উপাধীতে ভ’ষিত হন। সেসময় ভারতের বিভিন্ন পত্রিকায় শিরোনাম হয়েছিলেন। ১৯৭৮ সালে বাংলা একেডেমীর আয়োজনে  বাংলাদেশ ফোকলোর পরিষদে চারদিন ব্যাপি যে লোকমেলা হয় সেখানে তিনি বাউল গানে অন্যতম সেরা শিল্পি নির্বাচিত হন। তার রচিত গানের মধ্যে প্রাত্যাহিক জীবনের সুখ, দুঃখ, দেহসত্ত্ব, বাউল, মূরশিদি, মারফতি ও সমাজ চিত্র ফুটে উঠেছে। সমসাময়িক ঘটনার বর্নণা ও পদ রচনা তার সাধক কবি হিসাবে বিরল দৃষ্টান্ত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here