বাঘারপাড়া উপ নির্বাচন নৌকা ও আনারস প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

0
112

বাঘারপাড়া উপ নির্বাচন নৌকা ও আনারস প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে নৌকা ও আনারস প্রতীকের দুই প্রার্থী বৃহস্পতিবার দুপুরে ও সন্ধ্যায় পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সম্মেলনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ভিক্টোরিয়া পারভিন সাথী দাবি করেছেন স্থানীয় এমপি ও বাঘারপাড়া থানার ওসি নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন । অপরদিকে আনারস প্রতীকের প্রার্থী দ্বীন মোহাম্মদ ওরফে দিলু পাটোয়ারি নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিরুদ্ধে ভাড়াটে সন্ত্রাসী এনে তার সমর্থকদের মারপিট, হামলা মামলা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছেন। আনারসের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা করতে দিচ্ছে না বলেও তার দাবি।

লিখিত বক্তব্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল ইসলাম ওরফে দীন মোহাম্মদ ওরফে দিলু পাটোয়ারি বলেন, নৌকা প্রতীকের নেতাকর্মীদের বাধার কারণে তার আনারসের নির্বাচনের প্রচারণা চালাতে পারছে না। গত ১৮ নভেম্বর নৌকার প্রার্থী সাথীর দেবর টুটুলের নেতৃত্বে সশস্ত্র ক্যাডাররা আমাকে অপহরণের চেষ্টা করেছিল। আমাকে রক্ষা করতে যেয়ে অনেক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। বুধবার দিবাগত রাতে বন্দবিলা ইউনিয়নে আনারসের প্রচার মাইকে হামলা করে ভাঙচুর ও বোমা ফাটিয়ে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে নৌকার নেতাকর্মীরা। আবার আমার নেতা কর্মীদের নামে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। কতিপয় পুলিশ সদস্য তাদের এ সব কাজে সহযোগিতা করছেন। আমার নেতা কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দিচ্ছে। আটক করার চেষ্টা করছে। অপরদিকে নৌকা প্রতীকের নেতাকর্মীদের নামে দায়ের করা মামলায় পুলিশ কাউকে আটক করছেনা পুলিশ।

তিনি বলেন, নির্বাচনের দিন অন্য উপজেলা থেকে সন্ত্রাসী ক্যাডার বাহিনী ভাড়া করে এনে ভোট ডাকাতি এবং কারচুপির পরিকল্পনা করেছে নৌকার প্রার্থী। গণতান্ত্রিক মৌলিক অধিকার রক্ষায় তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, বাঘারপাড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ, হরিপদ রায়, আজগর আলী, আকবার আলী, নুর মোহাম্মদ, আব্দুল মালেক মন্ডল, বাবুল কুমার সাহা, অভিরাম দেবনাথ, অরুন অধিকারী, গোলাম সরোয়ার, নরেন দেবনাথ, জালাল, মোল্লা, আমিনুর রহমান, নুর জালাল খান, নিখিল কুমার আঢ্য, ফয়সাল আহম্মেদ মিল্টন, মোশারফ হোসেন প্রমুখ।

অপরদিকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ভিক্টোরিয়া পারভীন সাথী লিখিত বক্তব্যে বলেন, নৌকার বিজয় নিশ্চিত জেনে দ্বীন মোহাম্মদ দিলু পাটোয়ারি বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ক্যাডার এনে আমার কর্মী সমর্থকদের হামলা নির্যাতন চালাচ্ছে। দিলু পাটোয়ারির নির্দেশে ১ ডিসেম্বর নৌকার প্রচার মাইক ভাঙচুর ও পোড়ানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা করতে গেলে মামলা নেয়া হয়নি। উল্টো আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থকদের অহেতুক হয়রানি করছেন। দিলু পাটোয়ারি সংসদ সদস্য রনজিত কুমার রায়ের প্রত্যক্ষ মদদে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করছেন।

তিনি বলেন, সংসদ সদস্য ও বাঘারপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রনজিত কুমার রায় এবং বাঘারপাড়া থানার ওসি সৈয়দ আল মামুন যোগসাজস করে আমার পরিবারের সদস্য টুটুলসহ নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন। ওসির দাবিকৃত ১৫ লাখ টাকা না দেয়ায় নির্বাচন করতে দেবেন না বলে টুটুলকে হুমকি দেয়া হয়েছে। বিষয়টি কেন্দ্রীয় ও জেলা আওয়ামী লীগকে জানানো হয়েছে। তিনি অবিলম্বে বাঘারপাড়া থানার ওসিকে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্বয়কারী জেলা আওয়ামী লীগে সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আফজাল হোসেন, বাঘারপাড়া উপজেলার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বিথীকা বিশ্বাস, কামরুল হাসান টুটুল, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল্লাহ খন্দকার, ইঞ্জিনিয়ার বিপুল ফারাজী, এসএম আলমগীর হাসান রাজীব প্রমুখ।