বাঘারপাড়ায় দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে নারিকেলবাড়িয়া বাজারের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ

0
1308

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘারপাড়া (যশোর): বাঘারপাড়ার নারিকেলবাড়ীয়ায় দুই গ্রামবাসীর মধ্যে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় পুলিশসহ আহত হয়েছে কমপক্ষে ২০ জন। বর্তমানে দু’গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। নারিকেলবাড়িয়া বাজারের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে । যে কোন মূহূর্তে বড় ধরনের অঘটনা ঘটার আশংকায় রয়েছে এলাকাবাসী। তবে পুলিশ দাবি করেছে নতুন করে কোন ধরণের সংঘর্ষের সম্ভাবনা নেই।
প্রতাক্ষদর্শীরা জানান, গত মঙ্গলবার বিকালে নারিকেলবাড়িয়া গ্রামের সামছুর রহমানের ছেলে জুলহাসের (২২) সাথে পাশ্ববর্তী ক্ষেত্রপালা গ্রামের জুবায়ের ও মিঠুর সিগারেটের ধোঁয়া বের করা নিয়ে বিতর্ক হয়। ওইদিনের ঘটনা হাতহাতির পর্যায়ে শেষ হলেও রেশ থেকে যায়। আজ জুম্মার নামাযের পর নারিকেলবাড়িয়া গ্রামের কয়েক হাজার নারী পুরুষ এ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় নারিকেলবরাড়িয়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এসএম রায়হান জানান, গতকাল দুপুরে ক্ষেত্রপালায় জড়ো হওয়া কয়েক’শ জনতাকে তিনি শান্ত করতে ব্যর্থ হন। দু’পক্ষ মুখোমুখি হয়ে অবিরাম ইট পাটকেল ছুঁড়তে থাকে। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ এসে দু’পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুরুতর আহত হয় ক্ষেত্রপালা গ্রামের খোকন বিশ্বাসের ছেলে জামিরুল (১৫), একই গ্রামের খোরশেদের ছেলে বিল্লাল (৪৫), নারিকেলবাড়িয়া গ্রামের মৃত লোকমান মোল্লার স্ত্রী আছিরন বেগম (৬৫), বাঘারপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) ওহিদুজ্জামান, কন্সটেবল শরিফুল ইসলাম, এবাদত হোসেন, এএসআই রায়হান ও নিয়ামুল ইসলাম। আহতদের কয়েকজনকে শালিখা, বাঘারপাড়া ও যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে বেশ কয়েকজন। বাঘারপাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মন্জুরুল আলম জানান, ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ঘটনাস্থলে ৬০ জন পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। যে কোন উদ্ভুদ পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমরা সর্বদা তৎপর আছি এবং আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here