বাড়ি বাড়ি বিদ্যুতের মিটার পৌঁছে দিচ্ছে ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ এম ডি ইয়াছিন আলী সোহাগ

0
446

রাশেদুজ্জামান রাসেলঃ যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর রূপদিয়া সাব জোনাল অফিসের উদ্যোগে শহর ও গ্রামাঞ্চলে ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ কার্যক্রমের মাধ্যমে মানুষের বাড়ি বাড়ি ভ্যানে করে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে বিদ্যুতের মিটার।
গত প্রায় এক সপ্তাহে এ উপজেলায় শতাধিকের বেশি মিটার স্থাপন করা হয়েছে এ কার্যক্রমের আওতায়।
এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানের অসহায় ও দরিদ্র ১৫ জনকে বিনা খরচে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে। আর এদের খরচের টাকা মিটিয়েছেন যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ৬ নং এলাকার পরিচালক ও সমিতি বোড এর কোষাদক্ষ এম ডি ইয়াছিন আলী সোহাগ

আসছে আগামি ১৩ মার্চ ১০০ % বিদ্যুৎ এর উদ্ভধন করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমাতির ৬নং এলাকা পরিচালক আনুষ্ঠানিকভাবে ভ্যানে বিদ্যুৎ সরঞ্জাম নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এরপর থেকে হয়রানি, ভোগান্তি, দালালমুক্ত ও বাড়তি টাকা খরচ ছাড়াই গ্রাহকরা এ সংযোগ পাচ্ছেন।
পল্লী বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলার ৭ ইউনিয়নে একটি ভ্যান ও তিনটি মোটরসাইকেলের মাধ্যমে ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ নামে পাঁচ মিনিটে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ কার্যক্রম চলছে পুরোদমে। প্রত্যেক ভানের সঙ্গে একজন ওয়ারিং পরিদর্শক, দু’জন লাইনম্যান ও ওয়্যারিংম্যান রয়েছে। গত কয়েক দিনে প্রায় শতাধিক মিটার স্থাপন করা হয়েছে।
সদর উপজেলার কচুয়া ইউনিয়নে নিমতলি গ্রামের আকলিমা বেগম বলেন, এতো কম সময়ে বিদ্যুতের লাইন পাওয়া ছিলো কল্পনার অতীত। এভাবে যদি সহজে বিদ্যুৎ সংযোগ না পাওয়া যেত, তবে হয়তো বিদ্যুৎ আনাই হতো না।
আর বর্তমান সরকারের এমন কাজে খুশি অন্য গ্রাহকরাও।
এ ব্যাপারে যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির রুপদিয়া সাব জোনাল অফিসের এজিএম বলেন, ‘আলোর ফেরিওয়ালা’র মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিহীন এলাকা ও বাড়ি ঘরে স্বল্পসময়ে বিদ্যুৎ পৌঁছানো আমাদের অঙ্গিকার। বিড়ম্বনা ছাড়া আমাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এছাড়াও সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানের অসহায় ও ওয়ারিং খরচ দিয়ে সম্পূর্ণ বিনা খরচে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে।