বিচারের দাবিতে উত্তাল বগুড়া, জবানবন্দি দিলেন ধর্ষিতা

0
334

নিজস্ব প্রতিবেদক: ছাত্রীকে ধর্ষণের পর বিচারের কথা বলে মারপিট এবং নির্যাতনের পর ধর্ষিতা ও তার মা’র মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় অপরাধীদের বিচারের দাবিতে উত্তাল বগুড়া। এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃতরা ইতিমধ্যে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। এদিকে, সোমবার কিশোরীর মেডিকেল রিপোর্ট করার পর মঙ্গলবার আদালতে জবানবন্দি প্রদান করেছেন তিনি।

বগুড়ায় ধর্ষিত ছাত্রীকে জবানবন্দি প্রদানের জন্য শিশু আদালতের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ইমদাদুল হকের আদালতে নেয়া হয়। সেখানে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টায় জবানবন্দি প্রদান করেন। এসময় তার নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে পুলিশের পক্ষ থেকে আদালত প্রাঙ্গণে বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেয়া হয়। এর আগে সোমবার ওই কিশোরীর ডাক্তারী পরীক্ষা করানো হয়েছে।

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের উপাধ্যক্ষ রেজাউল আলম জুয়েল জানান, ওই কিশোরীর মেডিকেল করানোর জন্য ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসকদের নিয়ে একটি বোর্ড গঠন করা হয়েছে। সেই বোর্ডের দায়িত্বপ্রাপ্তরা সোমবার মেডিকেল রিপোর্ট করেন।

বগুড়ার শিশু আদালতের স্পেশাল পিপি অ্যাড. আমান উল্ল্যাহ বলেন, আসামিরা প্রভাবশালী হওয়ায় কিশোরীর নিরাপত্তার জন্য তাকে সেফ হোমে রাখার দাবি জানানো হয়েছে।

বগুড়ার অতিরিক্তি পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তি জানান, মঙ্গলবার কিশোরীর জাবানবন্দি নেয়ার জন্য আদালতে নেয়া হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তার আবেদনের প্রেক্ষিতে মেডিকেল পরীক্ষা করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, রিমান্ডে নেয়া আসামিরা ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রয়েছে।

গত ১৭ জুলাই কলেজে ভর্তি করার কথা বলে কিশোরীকে কৌশলে ডেকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে গ্রেফতারকৃত তুফান সরকার। এ ঘটনার পর ২৮ জুলাই দুপুরে ওই এলাকার পৌর কাউন্সিলর রুমকি ও তার সহযোগিরা বিচারের নামে ওই মেয়ে ও তার মাকে ধরে নিয়ে গিয়ে আটকে রেখে মারপিট করে মাথা ন্যাড়া করে দেয়। এ খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে তুফান সরকার ও তিন সহযোগিকে গ্রেফতার করে। বগুড়া সদর থানায় এসব ঘটনায় ওই কিশোরীর মা মুন্নি বেগম বাদি হয়ে অপহরণ, ধর্ষণ ও মারপিটের অভিযোগে সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে তুফান সরকারের স্ত্রী আশা সরকার, ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুমকি ও তার মা রুমি, মাথামুণ্ডনকারি নাপিত জীবন রবিদাসসহ ৯ জনকে গ্রেফতার করে। পরে তাদের বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

উত্তাল বগুড়া:
এদিকে বগুড়ায় ধর্ষণ, নারী নির্যাতনকারী বহিস্কৃত শহর শ্রমিকলীগের আহ্বায়ক তুফান সরকার ও তার সহযোগীদের দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বামপন্থী সংগঠন। মঙ্গলবার সকাল ১১টায় বগুড়া শহরের সাতমাথায় এক সাথে মানববন্ধন করেন, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা, উদিচী শিল্পীগোষ্ঠী, সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম, সিপিবি, বাসদ, বাংলাদেশ নারী মুক্তি কেন্দ্র, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট।

মানববন্ধন থেকে বাসদ বগুড়া জেলা সভাপতি অ্যাড. সাইফুল ইসলাম, সিপিবির জেলা সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ফরিদসহ নেতৃবৃন্দরা বলেন, দ্রুততম সময়ে এবং নজিরবিহীন বিচার করতে হবে তুফান সরকার ও তার সহযোগীদের। বিচার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন তারা। মানবন্ধন চলাকালে অনেক পথচারীও মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করেন।

অপরদিকে দুপুর ১২টায় বগুড়া জেলা বিএনপি কিশোরী নির্যাতনকারি তুফান সরকার ও তার সহযোগীদের বিচারের দাবিতে জেলা কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চান, উপদেষ্টা শোকরানাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here