বেনাপোলের শার্শা সিমান্তে এবার শরিষা ক্ষেতে মিল্ল ২০ টি স্বর্ণের বার

0
19

আশানুর রহমান আশা বেনাপোল : যশোরের শার্শা সিমান্ত এলাকায় বিজিবি অভিযান চালিয়ে ২ কেজি ৩ শ ৩০ গ্রাম ওজনের২০ টি স্বর্নের বার আটক করে।২১ নভেম্বর সোমবার সকালের দিকে স্বর্নের বারগুলো উদ্ধার করা হয় নারিকেল বাড়িয়ার একটি সরিষার ক্ষেত থেকে।

যশোর ব্যাটালিয়ন (৪৯ বিজিবি) এর অধিনায়ক, লেঃ কর্ণেল শাহেদ মিনহাজ ছিদ্দিকী জানান, মোঃ শরিফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শার্শা উপজেলার নারকেল বাড়িয়া গ্রামস্থ সীমান্ত এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। উক্ত অভিযান পরিচালনাকালে মেইন পিলার ২৯/০২-এস হতে আনুমানিক ৪০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে শার্শা থানাধীন নারকেল বাড়িয়া গ্রামস্থ কালু মিয়ার আম বাগানের মধ্য দিয়ে সাদা শার্ট পরিহিত একজন ব্যক্তি গোলাপী রঙের ব্যাগ হাতে ভারত সীমান্তের দিকে গমন করছে। উক্ত ব্যক্তির চলাচল সন্দেহজন হওয়ায় টহলদল তাকে চ্যালেঞ্জ করলে হাতে থাকা ব্যাগ সরিষা ক্ষেতের মধ্যে ফেলে ভারতের দিকে দৌড়ে পালিয়ে যায়।
পরবর্তীতে উক্ত স্থানে কর্মরত কৃষকের সহায়তায় সরিষা ক্ষেত তল্লাশী করে ব্যাগের মধ্য হতে ২০টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক ওজন ২.৩৩০ কেজি। উক্ত স্বর্ণের বর্তমান মূল্য ২,১৭,৮৫,৫০০/- (দুই কোটি সতের লক্ষ পঁচাশি হাজার পাঁচশত) টাকা।

এই বিষয়ে যশোর ব্যাটালিয়ন (৪৯ বিজিবি) এর অধিনায়ক আরো বলেন, সীমান্তে আমাদের টহল অত্যান্ত জোরদার অবস্থায় রয়েছে যার কারণে সীমান্তরক্ষীরা সীমান্তে অজ্ঞাত ও অবৈধ ভাবে চলাচলরত লোকদের চ্যালেঞ্জ করে এই স্বর্ণের বার উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। পালাতক আসামী মোঃ তারিকুল ইসলাম তারেক (৪০), পিতা-মৃত আঃ আজিজ, গ্রাম- শালকোনা, পোস্ট- শালকোনা, থানা- শার্শা, জেলা-যশোর। পলাতক আসামীকে আটক করার জন্য বিজিবি’র একটি স্পেশাল টিম অভিযানে আছে।

আটককৃত স্বর্ণ ও পালাতক আসামীর বিরুদ্ধে শার্শা থানায় মামলা দায়ের এবং স্বর্ণের বার ট্রেজারীতে জমা করা হয়েছে।