বেনাপোলের সীমান্ত ঘেষা অবহেলিত জনপদ পুটখালীর প্রধান সড়কটি বেহাল অবস্থা”

0
279

“কেউ কথা রাখেনি”

নিজস্ব প্রতিবেদক, বেনাপোল: ভারত সীমান্ত ঘেষা গ্রাম বেনাপোল পুটখালি বাজারের প্রধান সড়কটি দীর্ঘ দিন ধরে চলাচলের অকেজো হয়ে থাকলে ও কারো কোন মাথা ব্যাথা নাই বলে অভিযোগ উঠেছে ভুক্তভোগী এলাকাবাসীর।

বন্দর নগরী বেনাপোল থেকে ৬ কিলোমিটার দুরে সরেজমিনে দেখা গেছে রাস্তাটির বেহাল দশা বিরাজমান।

এলাকাবাসী জানায়, ছেলেমেয়েদের স্কুলে যাতায়াতের এবং বাজারের এক মাত্র প্রধান সড়ক এ রাস্তাটি। এরাস্তা দিয়ে যানবাহন তো দুরের কথা পায়ে হাটা চলা ও অত্যন্ত কষ্টকর ব্যাপার। জনপ্রতিনিধিরা বার বার রাস্তাটির সুব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস প্রদান করলে ও ২০১৭ তে এসে ও তাদের সেই আশ্বাস রাখে নাই।

এলকাবাসী জাতীয় নির্বাচন, স্থানীয় নির্বাচনের সময় নেতাদের বড় বড় আশ্বাসের নানা ফুলঝুরির বানী শুনি, কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় নির্বাচনের পর আর নেতাদের দেখা মেলা মুশকিল।

পুটখালি গ্রামের মেরাজ আলী (৭০) বলেন, এখানে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও এখানে সীমান্ত এলাকা টহলের জন্য একটি বিজিবি ক্যাম্প রয়েছে। প্রায় ৪টি গ্রামের ছেলেমেয়েরা স্কুলে যাতায়াত করে। বর্ষা মৌসুমে তাদের পায়ের স্যান্ডেল জুতা খুলে হাতে নিয়ে জামা প্যান্ট গুটিয়ে স্কুলে যেতে হয়। কাদা পানিতে পায়ে ঘা হয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন আমাদের এখাননপ বাজারের ব্যবসায়ীরা ও খুব অসুবিধার ভিতর আছে। দোকানপাটের সামনের রাস্তায় কাদা পানিতে ভরে যাওয়ায় মানুষ সেখানে কেনা বেচা করতে পারছে না।

পুটখালি বাজারের প্রধান সড়কে রাস্তার বেহাল অবস্থার জন্য কৃষকরা ও তাদের উপাদিতৎ পন্য নিজ বাজার পুটখালি ও বেনাপোল শহর সহ অন্যান্য শহরে পন্য উঠতে না পেরে হতাশা গ্রস্থ হচ্ছে এবং লোকসানে পড়ছে। তাদের উৎপাদিত বিভিন্ন প্রকার শাক শবজি সহ কৃষিপন্য বাজারে উঠাতে না পেরে পানির দামে মোকামি ব্যাবসায়িদের কাছে বিক্রি করে দিচ্ছে। আর মোকামীরা ট্রাক ভাড়া করে অল্প দামে পন্য ক্রয় করে ঐ কাদার রাস্তা দিয়ে নিয়ে আসছে মোকামে।

পুটখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, আমাদের এ রাস্তার জন্য ছাত্র/ছাত্রীদের উপস্থিতি ও অনেক কম। কাদার জন্য শিক্ষার্থীরা ঠিক মত স্কুলে আসতে পারে না।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশ না করার শর্তে জনৈক এক স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বলেন, আমরা বার বার এ রাস্তার জন্য আবেদন নিবেদন করে ও ব্যর্থ হয়ে যাচ্ছি।

এলাকাবাসীর পক্ষে কিতাব আলী ও মোক্তার আলী আক্ষেপের পাশাপাশি অনুরোধ সুরে বলেন, অবহেলিত এ জনপদের মানুষের কথা বিবেচনায় নিয়ে রাস্তাটি যাতে দ্রুত মেরামত হয় তার জন্য পত্রিকায় খবর প্রকাশ করার পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু জরুরী কার্যকরী ব্যবস্হা গ্রহনের জন্য জোর দাবি করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here