বেনাপোলে আমদানি রপ্তানী বন্ধের শঙ্কা

0
150

নিউজ ডেস্কঃ বেনাপোল স্থলবন্দরে অধিকাংশ ক্রেন ও ফর্কলিফট অকেজো থাকায় মালামাল ওঠানামা ও ডেলিভারি করা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে বন্দরে সৃষ্টি হয়েছে ভয়াবহ পণ্যজট। এ জটিলতা সামাধান না হলে যে কোনো সময় বন্ধ হতে পারে ভারতের সঙ্গে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য।
বন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, বেনাপোলে ২৫ টন ধারণক্ষমতা সম্পন্ন একটি ও পাঁচ টনের পাঁচটি ফর্কলিফট রয়েছে। এর মধ্যে ৪টি দীর্ঘদিন ধরে অচল। ৪০ টন, ৩৫ টন ও ১৯ টনের ক্রেন আছে একটি করে, আর ১০ টনের আছে দুটি। এসব ক্রেনের মধ্যে ৫টি অধিকাংশ সময় অকেজো থাকে। সবচেয়ে বড় ২৫ টনের ফর্কলিফটি অকেজো থাকায় বড় বিপর্যয় ঘটছে মালামাল লোড-আনলোডে।
বন্দর ব্যবহারকারীরা অভিযোগ, বন্দরের ড্রাইভার ও ইঞ্জিনিয়ারদের যোগসাজশে কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী এসব ফর্কলিফট ও ক্রেন ইচ্ছাকৃতভাবে অচল করে রাখেন। মাঝে মধ্যে মেরামতের জন্য যেসব যন্ত্রাংশ কেনা হয় তা অধিকাংশই পুরনো। ফলে মাস না ঘুরতেই ফের তা অচল হয়ে পড়ে।
ভারত-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক মতিয়ার রহমান জানান, এই বন্দর দিয়ে দেশের সিংহভাগ শিল্প-কলকারখানা, গার্মেন্ট ইন্ডাস্ট্রিজ ও বিভিন্ন প্রকল্পের মেশিনারিজ আমদানি হয়। ক্রেন ও ফর্কলিফট ছাড়া এ জাতীয় পণ্য বন্দরে লোড-আনলোড করা সম্ভব না। ৩৬ হাজার টন ধারণক্ষমতার বন্দরে প্রতিদিন ৮০ হাজার থেকে ১ লাখ টন পণ্য ওঠানামা করে।
বেনাপোল স্থলবন্দরের সহকারী পরিচালক মামুন তরফদার জানান, বন্দরে ক্রেন ফর্কলিফটের সমস্যা আছে। আইনি জটিলতার কারণে সমস্যাগুলো হচ্ছে, অচিরেই সব ধরনের সমস্যা সমাধান করা হবে বলে তিনি জানান।